মালালার পথ ধরে স্বপ্নদেখা কিশোরী

প্রকাশ : ০২ জানুয়ারি ২০১৮, ১৪:৪৫ | আপডেট : ০২ জানুয়ারি ২০১৮, ১৫:০১

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের জঙ্গি অধ্যুষিত খাইবার পাখতুনওয়া রাজ্যের শহর মার্দান। এই রাজ্যেই লেখাপড়া করার জন্য জঙ্গিদের হাতে আক্রান্ত হতে হয়েছিল মালালা ইউসুফজাইকে। সেই এলাকার এক কিশোরীই এখন স্বপ্ন দেখছে দেশের সেনাপ্রধান হওয়ার।

১৩ বছর বয়সী দুর্খানয় বানুরি পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনওয়ার বাসিন্দা। মুসলিমপ্রধান ওই দেশ এবং সর্বোপরি ওই রাজ্যে মহিলাদের পর্দার আড়ালে থাকাটাই রীতি। সেই রাজ্য থেকেই দেশের সেনাপ্রধান হওয়ার স্বপ্ন দেখছে দুর্খানয়। পাকিস্তানের রাজধানী শহর ইসলামাবাদ থেকে ১১০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মার্দান শহর। সেখানেই তৈরি হয়েছে দেশের প্রথম মেয়েদের জন্য ক্যাডেট কলেজ।

এক বছর হলো যাত্রা শুরু করেছে কলেজটি। যার প্রথম পড়ুয়া হচ্ছে ১৩ বছরের দুর্খানয়। দেশের সব ধরনের ক্যাডেট কলেজগুলো পরিচালনা করে সরকার। শিক্ষকতার দায়িত্বে থাকেন সেনাবাহিনীর শিক্ষা শাখার কর্মকর্তারা। এখান থেকেই পাস করা শিক্ষার্থীরা সেনাবাহিনী ও সিভিল সার্ভিসে যোগ দিয়ে থাকেন। সেইসঙ্গে ক্যাডেট কলেজ থাকা পাস করা শিক্ষার্থীদের শিগগিরই জমি ও বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেছে সরকার।

স্বপ্নদেখা ছাত্রী দুর্খানয় বানুরির ভাষ্য, ‘যখন একজন মহিলা প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন, বিদেশমন্ত্রী হতে পারেন, স্টেট ব্যাঙ্কের গভর্নর হতে পারেন, তখন সেই মহিলা দেশের সেনাবাহিনীর প্রধানও হতে পারবে। আপনি দেখে নেবেন আমিই এটা করে দেখাব।’  এই কিশোরীর সেই স্বপ্ন সফল করতে তার সঙ্গে রয়েছে মার্দানের ক্যাডেট কলেজটি।

পিডিএসও/তাজ