সন্তানের মুখে হাসি ফোটাতে বাবা-মায়ের আকুতি

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৮:৩৪

এম ইমরান হোসাইন, সংবাদকর্মী

হার্টের রোগে আক্রান্ত ৫ বছর বয়সী শিশু ওয়াজেদ আলী স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চায়। অন্য দশজন শিশুর মতো খেলাধুলা করে সময় কাটাতে চায় সে। চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বারশত ইউনিয়নের গুন্দীপ এলাকার হাসান আলী ও শামীম আরা দম্পতির একমাত্র সন্তান ওয়াজেদ। বাবা বেসরকারি একটি কোম্পানীতে ও মা স্থানীয় গুন্দীপ আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে খণ্ডকালীন শিক্ষিকা হিসেবে সামান্য বেতনের চাকরি করে। 

ওয়াজেদের হার্টে জন্মগতভাবে দুটো ফুটো রয়েছে। যা তার জন্মের দুই মাসের মাথায় ধরা পড়ে। ডাক্তারি ভাষায় একে বলে ‘এন্ট্রিয়াল স্পোল ডিফেক্ট, ভেন্ট্রিকুলার সেপ্টাল ডিফেক্ট।’ তার বয়স ৫ বছর হলেও দেখলে মনে হবে না তার বয়স পাঁচ। কারণ, হার্টের ছিদ্রের জন্য একবার নিশ্বাস নিয়ে আরেকটা নিশ্বাস নিতে অনেক কষ্ট হয়। সে আর অন্য ১০টা শিশুর মতো হাসতে ও খেলতে পারে না। 

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এ রোগের জন্য দ্রুত সময়ে সার্জারি করা প্রয়োজন। বিদেশে নিয়ে এ রোগের চিকিৎসা করাতে প্রায় ১০ লাখ টাকার প্রয়োজন। ওয়াজেদের বাবা মায়ের পক্ষে এতো টাকা ব্যয় করা অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে। একমাত্র সন্তানের মুখে হাসি ফোটাতে বাবা-মা তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

ওয়াজেদের বাবা-মা বিত্তশালীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, সবাই যার যার অবস্থান থেকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলে তাদের সন্তান হয়তোবা আরো কিছুদিন এই সুন্দর পৃথিবীর বুকে হেসে খেলে বেড়াতে পারবে।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা
যোগাযোগ- শামীম আরা বেগম (২৭৯৯৩০৩, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, বিদেশ থেকে সহযোগিতা পাঠাতে- ২০৫০১০৩০২০২৭৯৯৩০, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, আগ্রাবাদ শাখা, চট্টগ্রাম। মোবাইল-০১৮৪৯-৫৯৩২০০ (বিকাশ)।

পিডিএসও/অপূর্ব