চিকুনগুনিয়া : বিনামূল্যে চিকিৎসা-ওষুধ দেওয়ার ঘোষণা

প্রকাশ : ১৬ জুলাই ২০১৭, ১৮:৫৪ | আপডেট : ১৬ জুলাই ২০১৭, ২০:১৩

অনলাইন ডেস্ক

চিকুনগুনিয়া আক্রান্তদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, এবার নিয়ন্ত্রণে আসবেই চিকুনগুনিয়া। আগামী ২ থেকে ৩ সপ্তাহের মধ্যেই চিকুনগুনিয়া নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। চিকুনগুনিয়া নিয়ে রাজনীতি না করার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। কোনোভাবেই যেন এডিস মশার প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি না পায়। আজ রোববার বিকেলে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে ঢাকা দক্ষিণের সমগ্র এলাকার নাগরিক সচেতনতা বৃদ্ধির অংশ হিসেবে ধানমন্ডি রবীন্দ্র সরোবরে ‘মিশন ধানমন্ডি’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এই আশ্বাস দেন। এ সময় এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকির হোসেন স্বপন, কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রি. জে. শেখ সালাউদ্দিনসহ অন্যান্য বিভাগীয় প্রধান ও অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
যেহেতু ৩ দিনের বেশি জমে থাকা স্বচ্ছ পানিতে এডিশ মশা জন্মায়। তাই নিজ নিজ বাড়িঘরের/ ফ্ল্যাটের ফ্রিজ, এসি, ফুলের টব, চৌবাচ্চা,পরিত্যক্ত ক্যান, ডাবের খোসা, গাড়ির টায়ার, ভাঙা মাটির পাতিল, ছাদ বাগান, গাছের কোটর ইত্যাদি স্থানে জমে থাকা পানি অপসারণের জন্য নগরবাসীসহ সংশ্লিষ্টদের আহ্বান জানান মেয়র। এদিকে চিকুনগুনিয়া প্রকোপ প্রতিরোধে আগামী ১৮ জুলাই মঙ্গলবার নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে একযোগে গণসচেতনতা ও গণসতর্কীমূলক প্রচার অভিযান চালানো হবে। মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন নিজে এসব প্রচার অভিযানমূলক গণসচেতনতা অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে নগরবাসীদের উদ্বুদ্ধ করবেন বলেও জানান তিনি।
মেয়র বলেন, ডিএসসিসির মশক নিধনে নিয়োজিত ৩০৩ জন স্প্রে ম্যান, ২৭১টি ফগার মেশিন এবং ১৪৮টি হস্তচালিত মেশিনের মাধ্যমে অঞ্চল-১ এর আওতাধীন ৭ টি ওয়ার্ডের প্রতিটি অলি-গলিতে ব্যাপকভাবে লার্ভিসাইডিং এবং ফগিং করা হয়। স্ব স্ব অঞ্চলের ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মশা নিধন কর্মীদের মাধ্যমে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে গৃহীত কার্যক্রম সফলভাবে বাস্তবায়ন এবং এটা নিবিড়ভাবে মনিটরিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়।
ডিএসসিসির নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ঢাকা দক্ষিণের ৫টি অঞ্চলের ৩৯১টি মসজিদের ইমাম/খতিবদের চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে সচেতনমূলক বক্তব্য দেওয়া অব্যাহত আছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে শিক্ষার্থী, শিক্ষকমন্ডলীসহ সবাইকে সচেতন করে তুলতে শিক্ষামূলক সচেতনমূলক মতবিনিময় সভার আয়োজন চলছে নিয়মিতভাবে। ওয়ার্ড কাউন্সিলরা স্ব স্ব ওয়ার্ডের প্রতিটি বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে লিফলেট বিতরণসহ এলাকায় র‌্যালির আয়োজন করছেন। এনজিও-কেও এসব কাজে সম্পৃক্ত করা হয়েছে।

পিডিএসও/মুস্তাফিজ