চোখ-মুখ ও নাকে হাত দেওয়া কমাতে পরামর্শ

প্রকাশ : ২৫ মার্চ ২০২০, ১২:১৩

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বে মহামারি রূপ নেওয়া করোনাভাইরাস থেকে সাবধান থাকতে দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন সতর্কমূলক বার্তা। তার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সতর্কবার্তা হলো চোখে মুখে ও নাকে হাত দিলে করোনাভাইরাস সবচেয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে মানুষেরvশরীরে প্রবেশ করে। এত এত সাবধান বাণী ও সতর্কবার্তা প্রচারের পরও কেন অনেকেই তা মানছে না।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এটা শুধু বাংলাদেশের বা কোনো নির্দিষ্ট দেশের মানুষের স্বভাব তা না। মানুষের মৌলিক যে কয়টি আচরণ আছে তার মধ্যে কিছুক্ষণ পরপর মুখে হাত দেওয়া অন্যতম।

কারণ মানুষ ভূমিষ্ঠ হওয়ার আগে মায়ের পেটে থাকা অবস্থায় কিছুক্ষণ পরপর মুখে চোখে হাত দেয়। অতি প্রাচীনকাল থেকে মানুষ ও অন্য বড় প্রাণীরাও পোকামাকড় থেকে রক্ষা পেতে মুখে হাত দেওয়া শুরু করে। এমনকি বিষণ্ণ হলে, রাগ করলে, বিস্ময় প্রকাশ করার সময় মানুষ মুখে হাত দেয়।

কিন্তু করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার এই সময়ে তো এসব পরামর্শ মানতে হবে। তাই গবেষক ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা চোখেমুখে হাত দেওয়া বন্ধে কিছু পরামর্শ দিয়েছেন।

বিশেষজ্ঞরা এ বিষয়ে প্রথম পরামর্শ হিসেবে বসে বা শুয়ে থাকার সময় দুই হাতের আঙুল মুষ্টিবদ্ধ করে রাখা। মুষ্টিবদ্ধ থাকা অবস্থাতেই কথা বলা বা হাঁটা-চলার চেষ্টা করা। এ ধরনের অবস্থায় অনেক সময় হাতের মুষ্টি ছুটে যেতে পারে। ফলে কিছুক্ষণ পরপর দুই হাত নাড়ানো। দুই হাত ছেড়ে দিয়ে কিছুক্ষণ পর আবারো মুষ্টিবদ্ধ করে রাখা।

দ্বিতীয় পরামর্শ হিসেবে বিশেষজ্ঞরা চোখে চশমা দেওয়ার কথা বলছেন। এতে চোখে আঙুল চলে গেলেও বাধা আসবে। সারা দিন চোখে চশমা পড়ার অভ্যাস করলে চোখে হাত দেওয়ার অভ্যাস ধারাবাহিকভাবে কমে আসবে।

তৃতীয় পরামর্শ হিসেবে মুখে মাস্ক ব্যবহার করার কথা বলেছেন বিশেষজ্ঞরা। এতে হাতে থেকে মুখের মধ্যে ভাইরাস প্রবেশ করবে না।

পিডিএসও/তাজ