ভেষজ গুণে ভরপুর কিশমিশ

প্রকাশ : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৪১ | আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৫৭

অনলাইন ডেস্ক

কিশমিশ সাধারণত রান্নার কাজেই বেশি ব্যবহৃত হয়। অতি সুস্বাদু একটি ফল কিশমিশ। অনেকের ধারণা, শুধু কিশমিশ খেলে দাঁতের অনেক ক্ষতি হয়ে থাকে, কিন্তু এটি একদম ভুল ধারণা। কিশমিশ খাওয়া আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী; জরুরি তো বটেই।

মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ায় : কিশমিশে রয়েছে বোরন, যা মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়তা দিয়ে থাকে। বোরন মনোযোগ বৃদ্ধিতে বিশেষভাবে কার্যকরী একটি উপাদান। মাত্র ১০০ গ্রাম কিশমিশ থেকে প্রায় ২ দশমিক ২ মিলিগ্রাম বোরন পাওয়া সম্ভব।

উচ্চরক্ত চাপের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে রাখে : কিশমিশের পটাশিয়াম উচ্চরক্ত চাপের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে এবং অতিরিক্ত সোডিয়াম রক্ত থেকে দূর করে উচ্চরক্ত চাপের সমস্যা প্রতিরোধ করে।

কোলেস্টেরলের সমস্যা কমায় : কিশমিশে খারাপ কোলেস্টেরল রয়েছে শূন্য শতাংশ। এছাড়া কিশমিশের স্যলুবল ফাইবার খারাপ কলেস্টেরল দূর করে কোলেস্টেরলের সমস্যা প্রতিরোধে সহায়তা করে। এক কাপ কিশমিশ থেকে প্রায় চার গ্রাম পরিমাণে স্যলুবল ফাইবার পাওয়া যায়।

চোখের সুরক্ষা দেয় : প্রতিদিন কিশমিশ খাওয়ার অভ্যাস বার্ধক্যজনিত চোখের সমস্যা সমাধান করে। কিশমিশের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং পলিফেলন ম্যাকুলার ডিগ্রেডেশন প্রতিরোধ করে চোখের সুরক্ষায় কাজ করে।

অ্যাসিডিটির সমস্যা সমাধান করে : কিশমিশের ম্যাগনেশিয়াম ও পটাশিয়াম আমাদের পাকস্থলীর অতিরিক্ত অ্যাসিড, যা অ্যাসিডিটির সমস্যা তৈরি করে, তা দূর করতে সহায়তা প্রদান করে।

পিডিএসও/তাজ