ওজন বেড়ে যাওয়ার ৫ কারণ

প্রকাশ : ০১ জুলাই ২০১৯, ১৫:৫২ | আপডেট : ০১ জুলাই ২০১৯, ১৬:৫১

অনলাইন ডেস্ক

খাবার খেলে শরীরে শক্তি পাওয়া যায়, এটি সবারই জানা। তবে কখনো কখনো খাবারের প্রতি অতিরিক্ত আসক্তি বিপদ ডেকে আনে। বেশি খাবার খেলে ওজন বাড়ে, সেই সঙ্গে নানা রোগের আশঙ্কাও তৈরি হয়। তখন নিয়মিত শরীরচর্চা করলেও সুফল পাওয়া যায় না। খাবার ছাড়াও আরো কিছু অভ্যাসে ওজন বাড়ে। তা থেকে দূরে থাকা জরুরি।

১. অনেক সময় কোমলপানীয়তে ‘ডায়েট’ লেখা থাকার কারণে অনেকে মনে করেন তা খেলে ওজন বাড়বে না। গবেষণায় দেখা গেছে, যারা দিনে এ ধরনের ডায়েটপানীয় দুবার পান করেন, তাদের ওজন বাড়ার আশঙ্কা অন্যদের তুলনায় ছয় গুণ বেশি হয়।

২. সাপ্তাহিক ছুটির দিনে কমবেশি সবাই-ই বেশি ঘুমাতে ভালোবাসেন। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বেশি বা কম ঘুমানো দুটি-ই মানুষের ওজন বাড়ায়। যারা রাতে ৫ ঘণ্টা বা তার থেকেও কম ঘুমান, তাদের ওজন বাড়ার সম্ভাবনা বাড়ে। ভালো ঘুম না হওয়ার কারণে তাদের ক্লান্ত লাগে। তখন তারা বেশি খাবার খাওয়ার দিকে ঝুঁকেন। আবার যারা ৮ ঘণ্টার বেশি ঘুমান, তারা কোথাও নড়তে চান না, শরীরচর্চা থেকেও বিরত থাকেন। এ ধরনের প্রবণতাও ওজন বাড়ায়।

৩. যারা প্রতিবার খাবারের সময় কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন ও ফ্যাটযুক্ত খাবার বেশি খান, তাদের ওজন দ্রুত বাড়ে। বিশেষ করে ফাস্টফুডজাতীয় খাবার ওজন বাড়ায়।

৪. বেশি খাবার খাওয়া যেমন ক্ষতিকর, তেমনি খাবার না খাওয়াও বিপজ্জনক। অনেকে তাড়াহুড়ার কারণে কোনো বেলার খাবার এড়িয়ে চলেন। বিশেষ করে, সকালের নাশতা যারা খান না, তাদের ওজন বাড়ার ঝুঁকি বেশি। কারণ এর পরের বেলায় বেশি ক্ষুধার্ত থাকার কারণে খাবার বেশি খাওয়া হয়।

৫. অতিরিক্ত মানসিক চাপে থাকলেও ওজন বাড়ে। যদি মানসিক চাপ থাকে, তখন শরীর থেকে ইনসুলিন বের হয় এবং ক্ষুধা বেশি বাড়িয়ে দেয়। তখন খাবার খেলে হয়তো মস্তিষ্ক ঠাণ্ডা হয় কিন্তু শরীরের ওজন দ্রুত বেড়ে যায়।

পিডিএসও/তাজ