ল্যাপটপের কারণে মেরুদণ্ডে ব্যথা

প্রকাশ : ১৬ আগস্ট ২০১৮, ২০:১৭

অনলাইন ডেস্ক

বর্তমান বিশ্ব প্রযুক্তিনির্ভর। প্রযুক্তির ব্যবহারে পিছিয়ে নেই আমরাও। ল্যাপটপ ও স্মার্টফোন আজ আমাদের জীবনেরই একটি অংশ। কিন্তু এই ল্যাপটপ ব্যবহারে কিছুটা সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।

আপনি জানেন কি সারা দিন ল্যাপটপ ব্যবহারের ফলে আপনার মারাত্মক শারীরিক ক্ষতি হতে পারে। অতিরিক্ত ল্যাপটপ ব্যবহারের ফলে মেরুদণ্ড, ঘাড়, কাঁধসহ অন্যান্য জয়েন্ট ও মাংসপেশির ব্যথা হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয়। আর এ ক্ষয় থেকেই হতে পারে মেরুদণ্ডের ব্যথা ও হাড়ের ক্ষয়রোগ স্পন্ডাইলোসিস। তাই তো ব্রিটিশ গবেষকরা ল্যাপটপ ব্যবহারকারীদের সাবধান করে দিয়েছেন।

এক সমীক্ষায় পাওয়া যায়, ল্যাপটপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা আমাদের দেশে দিন দিন বাড়ছে। সারা বিশ্বে বিগত বছরগুলোয় নেটবুট ও ল্যাপটপ বিক্রির মাত্রা ব্যাপকভাবে বেড়েছে। আর এ বিক্রি বৃদ্ধির কারণে উন্নত বিশ্বের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। কারণ ল্যাপটপ ব্যবহারের ফলে ব্যবহারকারীরা হাত, কাঁধ ও মেরুদণ্ডের নানা ধরনের পেশির ব্যথায় ভুগতে পারেন।

অন্যদিকে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, কমবয়সী ছেলেমেয়েদের অতিরিক্ত ল্যাপটপ ব্যবহারের ফলে তাদের স্নায়ুর ক্ষতি হতে পারে। পায়ের ওপর রেখে বেশিক্ষণ ল্যাপটপ ব্যবহারের ফলে শরীরে চাপ পড়ে বেশি আর এতে শরীরের মাংসপেশিগুলোয় ব্যথার সৃষ্টি হয়।

অন্যদিকে ল্যাপটপ ব্যবহারকারীরা একদৃষ্টিতে মাথা নিচু করে স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকার ফলে ঘাড়ের মেরুদণ্ডে চাপ পড়ে আর এতে হতে পারে ঘাড়ের মেরুদন্ডের স্পন্ডাইলোসিস, আর্থ্রাইটিস বা ক্ষয়রোগ। আর মাংসপেশিগুলো বেশি কাজ করার দরুন দুর্বল হয়ে পড়ে ও এতে মাসেল স্পাজম দেখা দেয়। তাই বলে তো আর ল্যাপটপ ব্যবহার বন্ধ করা যাবে না।

কিন্তু যাদের দীর্ঘসময় ল্যাপটপ ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়ে তাদের অবশ্যই একজন ফিজিওথেরাপিস্টের পরামর্শ নিয়ে মাংসপেশি ও জয়েন্টের প্রয়োজনীয় কিছু ব্যায়াম করতে হবে। এতে জয়েন্ট ও মাংসপেশিতে চাপ কম পড়বে।

অন্যদিকে ল্যাপটপ ব্যবহার করার সময় ব্যবহারকারীরা প্রতি ২০ থেকে ২৫ মিনিট পরপর বিরতি দিয়ে একটু হাঁটাহাঁটি করুন। পরিশেষে যারা দীর্ঘসময় ল্যাপটপ ব্যবহার করেন তাদের আজ থেকেই স্বাস্থ্য সচেতন হওয়া জরুরি।

লেখক : জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, লেখক ও গবেষক, ইনচার্জ, ইনস্টিটিউট অব জেরিয়েট্রিক মেডিসিন

পিডিএসও/তাজ