ডিএসসিসিতে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ১৪ জুলাই

প্রকাশ : ০৫ জুলাই ২০১৮, ১৪:৫৮

অনলাইন ডেস্ক

আগামী ১৪ জুলাই (শনিবার) ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় সব শিশুকে উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এদিন ৬-৫৯ মাস বয়সী সব শিশুকে একটি করে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। বুধবার ডিএসসিসির ব্যাংক ফ্লোরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে মতবিনিময় সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

ডিএসসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. শেখ সালাহ্ উদ্দীনের সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ডা. সমীর কান্তি সরকার, সিভিল সার্জন ডা. এহসানুল করিম, ডিএসসিসির স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. জাকির আলম প্রমুখ।

সভায় জানানো হয়, আগামী ১৪ জুলাই ডিএসসিসি এলাকায় ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ৪৫ হাজার ২৯২ শিশুকে ১ লাখ আইইউ ক্ষমতাসম্পন্ন নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এ ছাড়া ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৩ লাখ ১১ হাজার ৮২৫ শিশুকে ২ লাখ আইইউ ক্ষমতাসম্পন্ন লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ১ হাজার ৪৮৭টি কেন্দ্রে ২ হাজার ৯৭৪ জন স্বেচ্ছাসেবক ও ১১২ জন সুপারভাইজর এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবেন। আর ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর জন্য শিশুদের ভরা পেটে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসতে বলা হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্য ডা. শেখ সালাহ উদ্দিন বলেন, স্বাস্থ্য সচেতনতার দিক থেকে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। এর পেছনের কারণ সরকার জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বেশ সচেতন। এর জন্য বছরে দুইবার ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়। ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন নিয়ে কোনো গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ডিএসসিসির এই প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেন, ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল শিশুদের রাতকানা রোগ থেকে মুক্ত রাখবে। এ ক্যাম্পেইন শুরু হওয়ার পর শিশুদের রাতকানা রোগের প্রাদুর্ভাব কমে এসেছে।

পিডিএসও/তাজ