পিঠের যত্নে ১০ কৌশল

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০১৭, ২১:০৬

অনলাইন ডেস্ক

শাড়ি হোক যেমন–তেমন। ব্লাউজটা ডিজাইন মতো হওয়া চাই। তবেই না উৎসবে সবার নজর কাড়বেন আপনি। তবে হল্টার নেক বা ব্যাকলেস— পরলেই হল না। মানাতেও হবে। এজন্য পিঠের পরিচর্যা কিন্তু খুব জরুরি। 

১. পিঠের ত্বককেও অবহেলা করবেন না। সপ্তাহে অন্তত তিনবার লুফায় সাবান নিয়ে পিঠে ঘষুন। ত্বকের মরা কোষ ঝরে পড়বে।

২. স্ক্রাবিং খুব জরুরি। এতে ত্বকের মরা কোষ ঝরে ঔজ্জ্বল্য বাড়বে। পোড়াভাবও দূর হবে। এক দিন অন্তর পিঠে স্ক্রাব লাগিয়ে ঘষুন।

৩. স্ক্রাবিংয়ের পাশাপাশি পিঠে লাগাতে পারেন কয়েকটি ঘরোয়া প্যাক।

৪. চালের গুঁড়ো, দুধ, মধু মিশিয়ে পিঠে লাগান। ১০ মিনিট পর ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন।

৫. ত্বক শুষ্ক হলে এক চামচ করে অলিভ তেল, মধু, দুধ, চিনি মিশিয়ে লাগান। কিছুক্ষণ রেখে ম্যাসাজ করুন। 

৬. ত্বক তৈলাক্ত হলে ব্যাসন, মুগ ডালের গুঁড়ো, দুধ প্যাক তৈরি করে লাগান। ধোওয়ার আগে ম্যাসাজ কিন্তু জরুরি।

৭. পিঠে ট্যান দূর করাও জরুরি। ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে ওটমিল মিশিয়ে লাগিয়ে ফেলুন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট ম্যাসাজ করুন।

৮. ওটমিলের সঙ্গে সেবুর রস, দুধের সরও মেশাতে পারেন।

৯. সব শেষে ত্বকে নিয়মিত ময়শ্চারাইজার লাগানোটা কিন্তু খুব জরুরি। রাতে শোওয়ার আগে বেবি অয়েল বা অলিভ তেল দিয়ে ম্যাসাজ করুন। বডি লোশনও ব্যবহার করতে পারেন।

১০. পুজোর আগে একটা বডি স্পা কিন্তু করানো যেতেই পারে।

এসবের শেষেও যদি টুকটাক খুঁত থেকে যায়, কমপ্যাক্ট তো আছেই!‌ বেরনোর আগে লাগিয়ে নিন।

পিডিএসও/রিহাব