যুক্তরাষ্ট্রেই ১৩৪ জন

করোনায় বিদেশে ২ শতাধিক বাংলাদেশির মৃত্যু

প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০২০, ০৯:১৩

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

বিশ্বের ১১ দেশে করোনাভাইরাস সৃষ্ট কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত দুই শতাধিক প্রবাসী ও অনাবাসিক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। বিভিন্ন দেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস ও বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতারা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়।

গত মঙ্গলবার পর্যন্ত শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রেই বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। সেদিন একজন চিকিৎসকসহ আরো সাত বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় ১৩৪ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হলো। তাদের মধ্যে তিনজন চিকিৎসক। সর্বশেষ মৃত্যু হওয়া বাংলাদেশিরা হলেন আমেরিকান চিকিৎসক ব্রুকলিন হাসপাতালের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ শামীম আল মামুন, শরীফ আহমদ, এনাম উদ্দিন, বীণা মজুমদার, এম রহমান মুক্তা, রানা বেগম ও একজন নারী। তাৎক্ষণিকভাবে ওই নারীর পরিচয় জানা যায়নি।

লং আইল্যান্ডের নর্থ শোর হাসপাতালে চিকিৎসক শামীম আল মামুনের মৃত্যু হয়। তিনি সিলেট মেডিকেল কলেজের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। এ ছাড়া নিউইয়র্কে ১৪ এপ্রিল এক দিনে ৩ হাজার ৭৭৮ জনের মৃত্যুর হিসাব যুক্ত হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। শুধু নগরীর পাঁচ বরোতেই ৭ হাজার ৯০৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

নগরীর মেয়র বিল ডি ব্লাজিও বলেন, প্রতিটি মৃত্যু বেদনার। হাসপাতালে ভর্তির হার কমে এলেও অসুস্থ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। নগরীর অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা বেশি। কৃষ্ণাঙ্গ, হিস্পানিকসহ বাংলাদেশি জনবসতি এলাকা করোনার আতঙ্কের এলাকা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পর যুক্তরাজ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় সময় সোমবার দুপুর পর্যন্ত দেশটিতে ৪৮ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। লন্ডনের বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটি এই তথ্য নিশ্চিত করেছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যম জানিয়েছে। এর মধ্যে লন্ডনেই বেশি সংখ্যক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে।

যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চ সংখ্যক বাংলাদেশি কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরে রয়েছে সিঙ্গাপুর। সেখানে ৬৬৯ জন বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইতালিতে ছয়জন; সৌদি আরব ও স্পেনে তিনজন; কাতার ও সুইডেনে চারজন; এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত, লিবিয়া ও গাম্বিয়াতে একজন করে বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। ইতালি, স্পেন, কুয়েত, মালয়েশিয়া ও জার্মানিতে যথাক্রমে ৭৪, ৭০, ২৫, ১২ ও ১০ জন বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। কানাডা ও ফ্রান্সে কমপক্ষে ২০ জন করে বাংলাদেশি আক্রান্ত হয়েছেন।

সৌদি আরবে করোনায় আক্রান্ত হয়ে জসিম উদ্দিন (৩৮) নামের আরো এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পবিত্র মক্কার আল-নুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। জসিম কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়নের মাইজপাড়ার মৃত নাজির হোসেনের ছেলে। দেশে ছুটি কাটিয়ে মাত্র একমাস আগে সৌদি আরবে ফিরে গিয়েছিলেন।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারে পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশি আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে অন্তত তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ মঙ্গলবার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আসুদ আহমেদ বলেন, ‘কাতারে পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সেখানকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসাধীন থাকা তিন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে।’

কাতারে কোভিড-১৯ রোগের সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতে থাকায় বাংলাদেশিদের আক্রান্তের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পেতে বলে কর্মকর্তারা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

ঢাকার সরকারি কর্মকর্তাদের তথ্য মতে, কাতারে বর্তমানে প্রায় সাড়ে তিন লাখ বাংলাদেশি কাজ করছেন।

 পিডিএসও/তাজ