বৃষ্টির সম্ভাবনা বুধবারও, পরে বাড়বে শীত

প্রকাশ : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:১১ | আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:১৭

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীসহ সারাদেশে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি। দিনভর বাতাসে শীতের দাপট। বেলা গড়াতেই বাড়তে থাকে ঠাণ্ডা। হঠাৎ শীতের দাপটে নাগরিকরা রীতিমতো জবুথবু। মঙ্গলবার এ চিত্র ছিল সারাদেশে। গায়ে কয়েকপ্রস্থ গরম কাপড় ও নানা ধরনের টুপি-মাফলার পরে লোকজনকে শীতের দাপট থেকে রক্ষা পাওয়ার চেষ্টা করতে দেখা গেছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, ঘূর্ণিঝড় ফেথাইয়ের প্রভাবে ঢাকাসহ সারাদেশে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি আগামীকাল বুধবারও অব্যাহত থাকতে পারে। এই বৃষ্টির হাত ধরে শীত নামার আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। বৃহস্পতিবারের মধ্যে মেঘ-বৃষ্টিমুক্ত হবে পৌষ মাসের আকাশ। মেঘমুক্ত আকাশে দেখা মিলবে নরম রোদের ঝিলিক। বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে তাপমাত্রা কমতে থাকবে। এতে শীতের তীব্রতা বাড়তে শুরু করবে। ক্রমান্বয়ে শীতের অনুভূতি তীব্র হবে। চলতি মাসের শেষ দিকে একাধিক শৈত্যপ্রবাহের আশঙ্কা রয়েছে।

রোববার রাতে শুরু হওয়া গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিতে ক্ষতির মুখে পড়েছেন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীরা। বৃষ্টির কারণে নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রার্থীদের মিটিং, মিছিল ও পথসভা বাতিল করতে হচ্ছে। রশিতে টাঙানো নির্বাচনী পোস্টার বৃষ্টিতে ভিজে নষ্ট হয়ে গেছে।

রাজধানীর বস্তিগুলোর সামনে ছিন্নমূল মানুষ কাগজ-খড়কুটো পুড়িয়ে একটু উষ্ণতা পাওয়ার চেষ্টা করেন। রাজধানীর খেটে খাওয়া ও অফিসগামী মানুষ বৃষ্টিতে দুর্ভোগে পড়েন। তবে বৃষ্টিতে কৃষকের উপকার হয়েছে। বোরো ধান ও শাকসবজির জন্য সুফল বয়ে আনছে বৃষ্টি।

আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান বলেন, বৃহস্পতিবারের মধ্যে বৃষ্টি পরিস্থিতির উন্নতি হবে। এরপর বাড়বে শীতের প্রকোপ। ডিসেম্বরের শেষ দিকে শৈত্যপ্রবাহের আশঙ্কা রয়েছে।

বাংলাদেশে নভেম্বরের মাঝামাঝি থেকেই শীত পড়তে শুরু করে। ডিসেম্বরে তা পূর্ণতা পায়। জানুয়ারির শেষে শীতের তীব্রতা কমে। এবার প্রকৃতিতে নিয়ম মেনেই একটু একটু করে শীত আসছে। পৌষের শুরুতেই শীতের অনুভূতি পাচ্ছে মানুষ।

মঙ্গলবার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়। এ সময় পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা, ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করা লঘুচাপটি আরও উত্তর ও উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে বৃষ্টি ঝরিয়ে ক্রমান্বয়ে দুর্বল হতে পারে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর, দেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

পিডিএসও/রিহাব