নায়ক অপূর্বর ভাইয়ের আত্মহত্যা

প্রকাশ | ১৪ জুন ২০১৯, ০৯:৪৯

অনলাইন ডেস্ক

জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর ছোট ভাই জাহেদুল ফারুক দীপু (৩৫) আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার ভোরে মোহাম্মদপুরের নিজ বাসা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তিন ভাইয়ের মধ্যে দীপু সবার ছোট। সবার বড় আব্বাস ফারুক স্বপন এবং মেজ জিয়াউল ফারুক অপূর্ব।

নিহত দীপুর বাবার উদ্ধৃতি দিয়ে আদাবর থানার ডিউটি অফিসার রোমান বলেন, দ্বীপ গান করতেন। প্রতিদিনের মতো এদিনও মিউজিক রুমেই ছিলেন। কাজের সময় ডাকলে দীপু বিরক্তবোধ করবে বলে তার স্ত্রী নিজ রুমে শুয়ে পড়েন। রাত সাড়ে ৩টার দিকে স্ত্রীর ঘুম ভাঙলে রুমে গিয়ে দেখেন দীপু সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের পর মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থান মসজিদে দীপুর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সেই কবরস্থানেই তাকে দাফন করা হয়। ভাইকে দাফন করে এসে অপূর্ব বলেন, দীপুর সঙ্গে এবার রমজান মাসে একবার দেখা হয়েছিল। আমার বাসায় একসঙ্গে ইফতার করেছিলাম। ঈদের দিন কিংবা ঈদের পরে ও আমাদের সঙ্গে দেখা করতে আসেনি। শুনেছি, গতকাল রাতে ও অনেকগুলো ঘুমের ওষুধ খেয়েছিল। এরপর নিজের স্টুডিওতে গিয়ে ঢোকে।

অপূর্ব আরো বলেন, দীপু সাত বছর আগে বিয়ে করেছে। তখন থেকেই ও আলাদা থাকছে। ওর স্ত্রী এখন সাড়ে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা। আত্মহত্যার আগে দীপু একটি চিরকুট লিখে গেছে। তাতে লেখা ছিল, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না। অংশ, আমি তোমাকে খুব ভালোবাসি।’ দীপুর মৃত্যু আমাদের পরিবারের জন্য বিরাট ধাক্কা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আদাবর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাউসার বলেন, ভোররাতে তিনি মোহাম্মদপুরের শেখেরটেকের ৬ নং রোডের নিজ বাসায় আত্মহত্যা করেন।

উল্লেখ্য, অনেক দিন ধরেই মিউজিকের সঙ্গে জড়িত ছিলেন দীপু। কিছুদিন আগেও দীপুর ‘ভালবাসি তোমায়’ গানটি প্রকাশিত হয়েছিল। গানটি থেকে ভালো সাড়াও পেয়েছিলেন তিনি। গান গাওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন নাটক ও টেলিছবির আবহ সংগীত করতেন। ভাই অপূর্ব অভিনীত অনেক নাটকেরও আবহ তৈরি করেছেন তিনি।

পিডিএসও/হেলাল