শুভ জন্মদিন

দেবী রূপী জয়া

প্রকাশ : ০১ জুলাই ২০১৮, ১৬:০৬

বিনোদন প্রতিবেদক

প্রথম বাংলাদেশি ‘ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড’ পাওয়া অভিনেত্রী ও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী জয়া আহসানের আজ জন্মদিন। জয়া অভিনীত প্রতিটি চলচ্চিত্রই দর্শক বেশ আগ্রহ নিয়ে দেখেছেন। যে কারণে এ মুহূর্তে দর্শক অপেক্ষায় আছেন তার অভিনীত অনম বিশ্বাস পরিচালিত চলচ্চিত্র ‘দেবী’ দেখার জন্য, যা আগামী সেপ্টেম্বরে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা চলছে।

এই চলচ্চিত্রে জয়া আহসান অভিনয় করেছেন রানু চরিত্রে এবং মিসির আলী চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী। গত সপ্তাহে কলকাতার নন্দনে চার দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হওয়া ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব’-এ প্রদর্শিত হয়েছে জয়া অভিনীত আকরাম খান পরিচালিত ‘খাঁচা’ চলচ্চিত্রটি। যথারীতি এ চলচ্চিত্র প্রদর্শনের সময় উপস্থিত দর্শক তার অভিনয়ের প্রশংসা করেছেন।

একের পর এক দেশে এবং দেশের বাইরের স্বীকৃতি পাওয়া প্রসঙ্গে জয়া আহসান বলেন, যেকোনো স্বীকৃতিই একজন শিল্পীর জন্য অনেক সম্মানের, ভালোলাগার। দেশ আমাকে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত করেছে। কিন্তু দেশের বাইরে কলকাতার চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য ‘জি-সিনে অ্যাওয়ার্ডস’-এ শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার হিসেবে একজন বাংলাদেশি অভিনেত্রী হিসেবে আমি প্রথম পেলাম। একজন বাংলাদেশি হিসেবে এ সম্মাননা আমাকে গর্বিত করে।

গত বছর আগস্টে কলকাতায় মুক্তি পায় জয়া অভিনীত অরিন্দম শীল অভিনীত ‘ঈগলের চোখ’ চলচ্চিত্রটি। এতে তার অনবদ্য অভিনয় প্রশংসিত হয়। গত বছরেই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী পরিচালিত ‘ভালোবাসার শহর দ্য সিটি অব লাভ’ মুক্তি পায়। এটি জয়া অভিনীত প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। এ চলচ্চিত্রে একেবারেই ব্যতিক্রম একটি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য আলোচনায়ও আসেন তিনি। জয়া আহসান অভিনীত কলকাতায় সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র মনোজ মিশিগান পরিচালিত ‘আমি জয় চ্যাটার্জি’।

সৃজিত মুখার্জি পরিচালিত জয়া অভিনীত ‘এক যে ছিলো রাজা’ আসছে দুর্গাপূজায় কলকাতায় মুক্তি পাবে। এতে তার সহশিল্পী হিসেবে আছেন অপর্ণা সেন, অঞ্জন দত্ত ও যীশু সেনগুপ্ত। তবে সৃজিতের ‘চৌরঙ্গী’ চলচ্চিত্রে জয়া অভিনয় করছেন না। বাংলাদেশে তার মুক্তিপ্রাপ্ত সর্বশেষ চলচ্চিত্র সাইফুল ইসলাম মান্নু পরিচালিত ‘পুত্র’ চলচ্চিত্রটি। এতে তার বিপরীতে ছিলেন ফেরদৌস। জয়া আহসান এরই মধ্যে প্রায় শেষ করেছেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নূরুল আলম আতিকের ‘লাল মোরগের ঝুটি’, ‘পেয়ারার সুবাস’ ও মাহমুদ দিদারের ‘বিউটি সার্কাস’।

জয়া আহসান প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন ২০১১ সালে নাসির উদ্দিন ইউসুফ পরিচালিত ‘গেরিলা’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য। একই বছরে তিনি ‘৪০তম বাচসাস ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’ অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার লাভ করেন ‘গেরিলা’তে অভিনয়ের জন্যই। এরপর তিনি রেদওয়ান রনির ‘চোরাবালি’ এবং অনিমেষ আইচের ‘জিরো ডিগ্রি’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য আবারও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন।

এদিকে আজ জয়া আহসানের জন্মদিন। জন্মদিনে তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন যেন সুস্থ থাকেন, ভালো থাকেন এবং আরো ভালো ভালো চলচ্চিত্র দর্শককে যেন উপহার দিতে পারেন। উল্লেখ্য, ২০০৮, ২০০৯ এবং ২০১০ সালে জয়া নাটকে অভিনয়ের জন্য পরপর তিন বছর শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কারে ভূষিত হন ‘চাড়–নিড়ম অ্যাওয়ার্ড’-এ।

পিডিএসও/তাজ