ঢাবির স্বার্থেই আরেফিন সিদ্দিককে উপাচার্য রাখার দাবি

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০১৭, ২০:২৫

ঢাবি প্রতিনিধি

কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে অপসাংবাদিকতার প্রতিবাদে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে বক্তারা বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিককে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক স্বার্থেই  উপাচার্য রাখার দাবি জানিয়েছেন। বুধবার অপরাজেয় বাংলার সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত এ মানববন্ধনে অংশ নেন বিপুল সংখ্যক সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক।

এসময় বক্তরা গণমাধ্যমে আরও বেশি সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন। কোনো ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে নিউজ প্রকাশ না করার দাবি তোলেন। বলেন, অপসাংবাদিকতা নয়, সাংবাদিকতা করতে। কারণ বর্তমানে উপাচার্যকে কেন্দ্র করে যে সাংবাদিকতা হচ্ছে তা ‘অপসাংবাদিকতা’। যার মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে অশান্ত করা ও অসম্মান করার চেষ্টা চলছে। 
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রহমত উল্লাহ বলেন, মিথ্যার উপর ভিত্তি করে কোনো শক্তি বিজয়ী হয়নি। আমরা জানি সমাজ বিনির্মাণে সাংবাদিকরা কাজ করে। কিন্তু আজকে মিথ্যাচার সাংবাদিকতা করে দেশের বিনির্মাণ বাধাগ্রস্থ করার চেষ্টা চলছে। ভিত্তিহীন সংবাদ কোনভাবেই মেনে নিবে না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষক সমিতি। 
রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক নাজমা শাহীন বলেন, আরেফিন সিদ্দিক কোন ব্যক্তি নয়, তিনি একটা প্রতিষ্ঠান। তাকে অসম্মান করা তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মানে পুরো বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র  করা। আমরা এটি কখনো করতে দিবো না। যে কোনোভাবেই হোক এটি প্রতিহত করব।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রঞ্জন কর্মকার বলেন, আজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সুষ্ঠু পরিবেশ চলছে। কিন্তু একটি গোষ্ঠী এ সুষ্ঠু পরিবেশকে নস্যাৎ করতে সাংবাদিকতার মাধ্যমে ‘অপসাংবাদিকতা’ চালাচ্ছে। তারা সুন্দর পরিবেশের মাধ্যমে শিক্ষার যে পরিবেশ তা নষ্ট করতে চায়। আমরা এসব ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধ লড়াই করব। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন সব শক্তি দিয়ে তা প্রতিহত করবে। 
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রুবাইয়াত ফেরদৌস বলেন, একপক্ষভাবে যেভাবে অপপ্রচার হচ্ছে তা কখনো গ্রহণযোগ্য নয়। উপাচার্য সম্পর্কে যে বক্তব্য প্রকাশ করা হচ্ছে তা সত্যের অপলাপ। সাংবাদিকতার বিরুদ্ধ সত্যের যে অপলাপ চলছে আমরা তার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছি।
মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক এ জে এম শফিউল আলম ভূঁইয়া, মুহসীন হলের প্রাধ্যক্ষ নিজামুল হক ভূঁইয়া, স্যার এ এফ রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ আফতাব উদ্দীন, জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অসীম সরকার, সহকারী প্রক্টর আফতাব আলী শেখ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক আব্দুস সালাম প্রমুখ।


পিডিএসও/রানা