২০ বছরে পদার্পণ শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের

প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০২০, ১৫:১৬

মো. আব্দুল্লাহ, শেকৃবি

২০ বছরে পদার্পণ করলো শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। ২০০১ সালের ১৫ জুলাই পূর্ণাঙ্গ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে যাত্রা শুরু করে দেশের প্রাচীনতম এই কৃষি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। মহামারি কোভিড ১৯-এর কারণে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসে কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন করেনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

১৯৩৮ সালের ১১ ডিসেম্বর দ্য বেঙ্গল অ্যাগ্রিকালচারাল ইন্সটিটিউটের ভিত্তি স্থাপন করেন তৎকালীন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী শেরেবাংলা একে ফজলুল হক। ১৯৪১ সালে ২০ জন ছাত্র নিয়ে বিএসসিএজি কোর্স শুরু হয়। ১৯৪৫-৪৬ শিক্ষাবর্ষে আইএসসি পাশের পর ত্রিবার্ষিক বিএজি ডিগ্রি কোর্স চালু করা হয়। 

শুরুতে এর নাম ছিল বেঙ্গল অ্যাগ্রিকালচারাল ইন্সটিটিউট, পাকিস্তান আমলে নাম হয় পূর্ব পাকিস্তান অ্যাগ্রিকালচারাল ইন্সটিটিউট। ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর নাম হয় বাংলাদেশ অ্যাগ্রিকালচারাল ইন্সটিটিউট। ২০০১ সালের ১৫ জুলাই তৎকালীন এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। বর্তমানে চারটি অনুষদ ও একটি ইন্সটিটিউটের অধীনে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি কোর্সে ৪ হাজার ৮০৪ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত আছেন। অনুষদসমূহের অধীনে ৩৫টি বিভাগে ৩২২ জন শিক্ষক পাঠদান ও গবেষণায় নিয়োজিত আছেন। শিক্ষার পাশাপাশি গবেষণার জন্য রয়েছে পাঁচটি গবেষণা খামার। নির্মাণাধীন দুটি হলসহ সাতটি হল রয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ বলেন, উন্নত শিক্ষা, কোর্স কারিকুলাম ও গবেষণার একটি আধুনিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পথে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। গবেষণার ১৮টি প্রজেক্টের কাজ সম্পুর্ণ হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সাথে গবেষণার প্রকল্প চুক্তি হচ্ছে। ক্যাম্পাসে বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ চলমান রয়েছে। 

পিডিএসও/হেলাল