ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

ছাত্রীর সঙ্গে শিক্ষকের অশ্লীল প্রেমালাপ ফাঁস

তদন্তে কমিটি গঠন

প্রকাশ : ০৩ জুলাই ২০২০, ১২:৪৯ | আপডেট : ০৩ জুলাই ২০২০, ১৪:২৭

এ আর রাশেদ, ইবি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) এক শিক্ষকের অশ্লীল প্রেমালাপের অডিও ক্লিপ ফাঁস হয়েছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান এক ছাত্রীর সঙ্গে ফোনে শারীরিক সম্পর্কসহ অশ্লীল প্রেমালাপ করেছেন বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় অধ্যাপক মিজানকে কারণ দর্শানোর পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের (টিএসসিসি) পরিচালক পদ থেকে অব্যহতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়া এ ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চত করেন। এর আগে সকালে রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশেও প্রশাসনিক পদ (টিএসসিসির পরিচালক) থেকে অব্যহতি দেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করা হয়।

ওই অফিস আদেশে বলা হয়, অধ্যাপক মিজান এবং নারী শিক্ষার্থীর মধ্যে যে অশ্লীল ও আপত্তিকর কথাবার্তা হয়েছে, তা নৈতিক স্খলনের শামিল। যার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীর মধ্যে যে পবিত্র সম্পর্ক, তা ক্ষুণ্ন হয়েছে।   

এরূপ কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে অধ্যাপক ড. মিজানকে টিএসসিসির পরিচালকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হলো। এছাড়া কেন তার বিরুদ্ধে চূড়ান্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা জানতে চেয়ে আগামী ৭ দিনের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার বরাবর কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

এদিকে, এ ঘটনার তদন্তে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এতে আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. হালিমা খাতুনকে আহ্বায়ক, শেখ হাসিনা হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. শেলীনা নাসরিন ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক সাইফুল ইসলামকে কমিটির সদস্য করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ জুন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক মিজানুর রহমান ও এক নারী শিক্ষার্থীর অশ্লীল প্রেমালাপের দুটি অডিও ক্লিপ ফাঁস হয়। ওই অডিও ক্লিপের একটিতে ড. মিজানকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নারী শিক্ষার্থীকে একা বাসায় আসার প্রস্তাব দেওয়াসহ বিভিন্ন ধরণের অশ্লীল আলাপ করতে শোনা যায়। 

​পিডিএসও/হেলাল