মেডিকেল ছাত্রীসহ জালিয়াত চক্র আটক

প্রকাশ : ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:২৯

জাককানইবি প্রতিনিধি

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ সেশনের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীর ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় একজনের বিপরীতে অন্যজনের পরীক্ষায় অংশগ্রহণের দায়ে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

আটকরা হলেন—ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ৫২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নওশিন সায়েরা অদ্রি। সে ফারহানা তাজমিম কণার হয়ে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। যার পরীক্ষার রোল ১৮৬৭৭। অদ্রিকে নিয়ে আসে মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী হিল্লোল বিশ্বাস। হিল্লোল ২০১৮ সালে মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি জালিয়াতি এবং র‍্যাগিংয়ের দায়ে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার হন। অদ্রি ও হিল্লোল প্রক্সি জালিয়াতি চক্রের সদস্য বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন। তারা সারাদেশে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে টাকার মাধ্যমে প্রক্সি দিয়ে থাকেন।

প্রতিটি পরীক্ষার জন্য তারা অনধিক দুই লাখ থেকে শুরু করে চার-পাঁচ লাখ টাকা আদায় করে থাকেন। চলতি বছর তারাসহ তাদের চক্র প্রায় এক কোটি টাকা ইনকাম করেছেন বলে স্বীকার করেন।

এ সময় আটকদের সঙ্গে ২টি মোবাইল ফোন, প্রায় ২৫টি এডিট করা ছবি, কয়েকটি আইডি কার্ড, একাধিক সিমকার্ড, ডাচ বাংলা ব্যাংকের এটিএম কার্ড ও মাদকসেবনের উপকরণ পাওয়া যায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর উজ্জ্বল কুমার প্রধান প্রতিদিনের সংবাদকে জানান, ‘বি’ ইউনিটের বিকেল শিফটের পরীক্ষা শুরুর আগে দায়িত্বরত স্বেচ্ছাসেবকরা সন্দেহভাজনভাবে আটক করে প্রক্টরিয়াল বডির পুলিশ প্রশাসনের কাছে সোপর্দ করে।

পিডিএসও/হেলাল