উপাচার্যের প্রতি তীব্র ক্ষোভ

জাবিতে সংহতি সমাবেশ

প্রকাশ : ০৬ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:৫০

জাবি প্রতিনিধি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে ও ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে আয়োজিত সংহতি সমাবেশে উপাচার্যের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বুধবার বেলা ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে সংহতি সমাবেশ শুরু হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (দুপুর আড়াইটা) সমাবেশ চলছিল।

সমাবেশে শিক্ষকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক মোজাম্মেল হক, অধ্যাপক কামরুল আহসান, অধ্যাপক খবির উদ্দিন, অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভুঁইয়া, অধ্যাপক তপন কুমার সাহা, অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু প্রমুখ। বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থী বক্তব্য দেন। এছাড়া ছাত্রমৈত্রী, ছাত্র ইউনিয়ন ও ছাত্রফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কয়েকজন নেতা সংহতি প্রকাশ করেন।

সংহতি সমাবেশের সঞ্চালক মুসফিক উস সালেহীন বলেন, প্রশাসন হল ভ্যাকেন্টের ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু হল ভ্যাকেন্ট হয়নি। হল খোলা আছে। আমরা গতকাল হলে ছিলাম। আপনারা যারা বিভ্রান্ত হয়ে হল ছেড়েছেন, তারা ফিরে আসুন। আর আমরা শুনেছি, বিকেলে প্রভোস্ট কমিটি মিটিং ডেকেছে। আমরা প্রভোস্ট কমিটিকে হুশিয়ার করতে চাই, যদি ছাত্র স্বার্থের বিরুদ্ধে কোনো সিদ্ধান্ত নেন। তবে তা প্রতিহত করা হবে। আর যদি খালি করতে হয়, ভিসির বাসভবন খালি করা হবে।

সমাবেশে শিক্ষক সমিতির পদত্যাগী সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক সোহেল রানা বলেন, কালকের ঘটনা অনভিপ্রেত। আমরা সুরক্ষা দিতে পারিনি। সমিতি থেকে সমবেদনাটুকুও জানাতে পারিনি। এজন্য মনে করেছি আর পদে থাকার প্রয়োজনীয়তা নেই।

এর আগে সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুরাদ চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। পরে শিক্ষকরাও মিছিলে যোগ দেন। ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থান ঘুরে মিছিল শেষে সংহতি সমাবেশ শুরু করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

পিডিএসও/হেলাল