আবরারকে পিটিয়ে হত্যা

বুয়েট শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা

প্রকাশ : ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:৫৯ | আপডেট : ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৪:১৮

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

আট দফা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য বুয়েটের সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বুয়েটের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে আন্দোলনে অংশ নেওয়া বুয়েট শিক্ষার্থীরা এই ঘোষণা দেন।

এর আগে আবরারের খুনিদের ফাঁসিসহ সাত দফা দাবিতে সকাল থেকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে আরো একটি দাবির কথা জানান তারা।

তাদের দাবিগুলো হলো—খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে খুনিদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করতে হবে, আবাসিক হলগুলোতে র‌্যাগের নামে এবং ভিন্নমত দমানোর নামে নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনের সক্রিয় ভূমিকা নিশ্চিত করতে হবে, ঘটনার ৩০ ঘণ্টা পরও ভিসি কেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি, মঙ্গলবার বিকেল ৫টার মধ্যে ক্যাম্পাসে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের কাছে তার জবাব দিতে হবে,  মামলার খরচ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হবে, এর আগের ঘটনাগুলোর বিচার করতে হবে, ১১ অক্টোবরের মধ্যে শেরে বাংলা হলের প্রভোস্টকে প্রত্যাহার করতে হবে এবং ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতির স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করতে হবে। এছাড়া আগামী সাতদিনের মধ্যে বুয়েটের সব সাংগঠনিক কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের ঘোষণা দেয় তারা।

গত রোববার গভীর রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ফেসবুকে রাজনৈতিক বিষয়ে মন্তব্যের সূত্র ধরে শিবির সন্দেহে আবরারকে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মী তাকে পিটিয়ে হত্যা করে বলে হলের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ।

ওই ঘটনায় বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ ১০ জনকে এ পর্যন্ত গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই নয়জনসহ মোট ১৯ জনের নামে চকবাজার থানায় মামলা করেছেন আবরারের বাবা।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সাংগঠনিক তদন্তের ভিত্তিতে বুয়েট ছাত্রলীগের ১১ জনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করার কথা জানিয়েছে।

পিডিএসও/হেলাল