পুনঃনিরীক্ষণে বদলাল সাড়ে ৩ হাজার শিক্ষার্থীর এসএসসি’র ফল

প্রকাশ : ০২ জুন ২০১৯, ১৬:২৫

অনলাইন ডেস্ক

সারাদেশের ১০টি শিক্ষাবোর্ডের মধ্যে ৯টির এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার খাতা পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ফেল করা ৫৬৫ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। আর নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮৬৪ জন। সব মিলে ফল পরিবর্তন হয়েছে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার পরীক্ষার্থীর। 

শনিবার শিক্ষাবোর্ডগুলো পৃথকভাবে তাদের ওয়েবসাইটে এই ফল প্রকাশ করেছে। গত ৬ মে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। এ বছর মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২১ লাখ ২৭ হাজার ৮১৫ জন। উত্তীর্ণ হয় ১৭ লাখ ৪৯ হাজার ১৬৫ জন। এবারের এ পরীক্ষায় সারাদেশে তিন লাখ ৬৯ হাজার খাতা পুনর্মূল্যায়নের জন্য আবেদন পড়ে। প্রতিটি খাতা বাবদ শিক্ষার্থীদের ফি দিতে হয়েছে ১২৫ টাকা। সেই হিসেবে পুনঃনিরীক্ষণ থেকেই বোর্ডগুলোর আয় হয়েছে প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা।

বোর্ড কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঢাকা বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ১৪২, নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৩৭ এবং ফল পরিবর্তন হয়েছে ২ হাজার ৮৩ পরীক্ষার্থীর। এ বোর্ডে ৫৭ হাজার ৫৫৫ পরীক্ষার্থী ১ লাখ ৩৯ হাজার ৩৩১টি উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন করেন।

দিনাজপুর বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৫৫, নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৫২ এবং ৩৩৮ পরীক্ষার্থীর ফল পরিবর্তন হয়েছে। যশোর বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৪৩, নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২০ পরীক্ষার্থী।

রাজশাহী বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৩৩, নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৭৬ পরীক্ষার্থী। এ বোর্ডে পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করেছিল ১৫ হাজার ১৭৩ শিক্ষার্থী।

কুমিল্লা বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৮৯ এবং জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৩ জন। ফল পরিবর্তন হয়েছে মোট ৪৬৪ জনের। এ বোর্ডে ১৫ হাজার ২৮৪ জন ৩১ হাজার ৮৪টি উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করেন।

সিলেট বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৩৭ জন, নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২২ শিক্ষার্থী। ফল পরিবর্তন হয়েছে মোট ১৫৭ জনের। এ বোর্ডে ১০ হাজার পরীক্ষার্থী ফল পূন:নিরীক্ষণের আবেদন করেন।

বরিশাল বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৪২, নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৪ পরীক্ষার্থী এবং ফল পরিবর্তন হয়েছে মোট ১৩০ জনের। ৮ হাজার ৪৮০ জন শিক্ষার্থী ১৫ হাজার ৯৮৫ টি উত্তরপত্র পুন:নিরীক্ষণের আবেদন করেন।

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৮০, নতুন করে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৪২ জন। এখানে মোট ৪৯২ জনের ফল পরিবর্তন হয়েছে। এ বোর্ডে ১৯ হাজার ১৮৩ জন পরীক্ষার্থী ১০টি বিষয়ে ৪৪ হাজার ২৯৭টি উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করেন।

মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৪৪ এবং নতুন জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৮ পরীক্ষার্থী। এ বোর্ডে ১১ হাজার ৭৪৫ শিক্ষার্থী পুন:নিরিক্ষণের আবেদন করেন এবং ১৭৬ জনের ফল পরিবর্তন হয়েছে। কারিগরি বোর্ডের তথ্য তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া যায়নি।

পিডিএসও/রি.মা