নতুন সংগঠন গড়বেন ডাকসুর ভিপি নুর

প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৩০

জিয়াউদ্দিন রাজু

রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত এমন ছাত্র সংগঠনের বাইরে নতুন ছাত্র সংগঠন গড়ে তোলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর। সম্পূর্ণ স্বাধীন ও মুক্ত চেতনার এবং জনকল্যাণই হবে এ সংগঠনের মূল কার্যক্রম। প্রতিদিনের সংবাদকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডাকসুর ভিপি নুর।

তিনি বলেন, মূলত ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’ আমাদের এই সংগঠনকে নতুনভাবে পুনর্গঠন করে সারা দেশে আমরা কার্যক্রম করব। দেশের বেশ কিছু স্থানে কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ কমিটি রয়েছে। কমিটির কর্মীদের কেউ কার্যক্রম করছেন, কেউ আবার ঝিমিয়ে পড়েছেন, তাদের সবাইকে নিয়ে নতুন করে দেশের সব স্থানে কমিটি হবে। কমিটিগুলো হয়ে গেলেই নতুন সংগঠনের পথচলা শুরু হবে।

তিনি বলেন, এ সংগঠনটি হবে রাজনৈতিক দলের লেজুড় ছাত্র সংগঠনের বাইরে সম্পূর্ণ স্বাধীন ও মুক্ত চেতনার। দেশের জনকল্যাণে কাজ করবে এই ছাত্র সংগঠনটি।

নতুন সংগঠনের নাম কিংবা পুনর্গঠন কাজ কবে নাগাদ শুরু হবে— এ বিষয়ে ভিপি নুর প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, সংগঠন ঘোষণার সময় এখন পর্যন্ত ঠিক হয়নি। তবে সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের দেশব্যাপী যে কমিটিগুলো রয়েছে, সেগুলোকে আবার উজ্জীবিত করে নতুনভাবে কমিটি করা হবে। এরপর ওই কমিটিগুলোকে নিয়ে আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে নতুন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় পথচলা শুরু হবে। দুর্নীতি, সন্ত্রাস, দখলদারত্বসহ অব্যবস্থাপনার বিপক্ষে তাদের সংগঠন কাজ করবে বলে জানান।

সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের অন্যতম যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর। গত শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তার সহকর্মীদের এক বৈঠকে নতুন এ সংগঠনের কথা বলেন নুর। ওইদিন বিকেল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এ বৈঠক চলে। এ সময় কোটা সংরক্ষণ আন্দোলনে যুক্ত ‘ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র নেতারা উপস্থিত ছিলেন। ডাকসু ভিপি নুর এ সময় ছাত্র সংগঠনের প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা ও নানা দিক তুলে ধরেন।

বৈঠকে নুরুল হক নুর কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় তাদের ওপর হামলা, অপপ্রচারের বিভিন্ন ঘটনা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, দেশব্যাপী তাদের প্রতি বিশাল অংশের মানুষের আস্থা তৈরি হয়েছে। তিনি আরো বলেন, তাদের উদ্যোগ আওয়ামী লীগ, বিএনপি বা অন্য দলের বিরোধিতার জন্য নয়, দেশ ও মানুষের স্বার্থে।

উল্লেখ্য, কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় প্রতিপক্ষ ছাত্র সংগঠনের হামলার শিকার হন নুরুল হক নুর। ২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে হারিয়ে ভিপি নির্বাচিত হন তিনি।

পিডিএসও/তাজ