ঢাবিতে লোকসংগীত উৎসব

প্রকাশ : ১৩ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৫২ | আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০১৮, ১৫:৩২

ঢাবি প্রতিনিধি

আধুনিক, অসাম্প্রদায়িক ও ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ বিনির্মাণে লোকসংস্কৃতিকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার প্রয়াসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) অনুষ্ঠিত হয়েছে লোকসংগীত উৎসব। ঢাবি ছাত্রলীগের আয়োজনে শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে হয় এ উৎসব।

উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী, ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলাম তখন ডাকসু ছিল। একুশে ফেব্রুয়ারিতে সর্বদলীয় ছাত্রসংগঠন নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হতো। তখন পশ্চিম পাকিস্তানি মনোভাবাপন্ন দুটি ছাত্রসংগঠন ছাড়া বাকিরা সবাই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতো। আজ এখানে এসে আমার সেই দিনের কথা মনে পড়ে গেল। ছাত্রলীগের এ ধরণের কর্মকাণ্ডে আমি সবসময় উপস্থিত থাকার চেষ্টা করবো। ছাত্রলীগ এ ধরণের অনুষ্ঠান নিয়মিত আয়োজন করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

লোকসংগীত উৎসবে সঙ্গীত পরিবেশন করেন—টুনটুন বাউল, কিরণ চন্দ্র, বাউলা, আবু বকর সিদ্দিক, দিতি সরকার, মনির বাউলা এবং ঢাবি ও দেশবরেণ্য লোকসঙ্গীত শিল্পীরা। এতে সংগীত ও সুরের মুর্ছনায় মেতে ওঠেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মী। এ উৎসবে ঢাবির নতুন প্রজন্মের শিল্পীদের সঙ্গে সারাদেশের প্রতিথযশা লোকসংগীত শিল্পীদের মেলবন্ধন ঘটে।

পিডিএসও/হেলাল