ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:৩৯ | আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:০১

ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের অধীনে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এ পরীক্ষার মাধ্যমে সমাপ্ত হলো বিশ্ববিদ্যালয়ের এ বছরের ভর্তিযুদ্ধ। তবে এই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ডিজিটাল যন্ত্রের মাধ্যমে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ উঠেছে।

সকাল সাড়ে দশটায় ১০০টি হাতে লেখা প্রশ্ন ও উত্তরসহ একজন সাংবাদিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে সরবরাহ করেন। পরীক্ষা শেষে সরবরাহ করা প্রশ্নের সঙ্গে অনুষ্ঠিত পরীক্ষার মূল প্রশ্নের অধিকাংশ প্রশ্নের হুবহু মিল পাওয়া যায়। এর মধ্যে বাংলায় ১৯টি, ইংরেজিতে ১৭টি এবং সাধারণ জ্ঞান ৩৬টি (বাংলাদেশ ১৬, আন্তর্জাতিক ২০) প্রশ্নসহ মোট ৭২টি প্রশ্নের মিল পাওয়া গেছে।

খাতায় লিখিত সবগুলোই প্রশ্নপত্রের সাথে মিল পাওয়া গেছে। সেই হিসেবে খাতার সব প্রশ্নই এসেছে। এক্ষেত্রে খাতার হিসেব করলে শতভাগ ফাঁস হয়েছে এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এর আগে ঘ-ইউনিটে ১৬১৫টি (বিজ্ঞানে- ১১৫২টি, বিজনেস স্টাডিজে- ৪১০, মানবিকে- ৫৩টি) আসনের বিপরীতে মোট ৯৫,৩৪১জন ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের ৮১টি কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সকালে ভর্তি পরীক্ষার বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এ সময় প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও ‘ঘ’ ইউনিট ভর্তি পরীক্ষার সমন্বয়কারী অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম, প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী তার সাথে ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অফিসে উপস্থিত থেকে ভর্তি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেন। 

পিডিএসও/তাজ