জাবিতে গণপিটুনি খেলেন বুয়েট ‘ছাত্রলীগ নেতা’

প্রকাশ : ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১৪:১৫ | আপডেট : ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১৪:৩৯

জাবি প্রতিনিধি

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) এক শিক্ষার্থীকে পিটুনি দিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীরা। গণপিটুনির শিকার শিক্ষার্থীর নাম তাহমিদ আহমদ।

তিনি নিজেকে বুয়েটের আহসানুল্লাহ হল শাখা ছাত্রলীগের পাঠাগারবিষয়ক সম্পাদক বলে দাবি করেন। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাবির পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদীপ্ত শাহীন তাহমিদ আহমদকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে বান্ধবীকে নিয়ে অসংলগ্ন অবস্থায় বসে থাকতে দেখেন। এতে তিনি এগিয়ে গিয়ে তাহমিদের পরিচয় জিজ্ঞাসা করলে এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে নিরাপত্তা কর্মকর্তার সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করতে দেখে জাবির এক শিক্ষার্থী এগিয়ে আসলে তাহমিদ তাকে লাথি মারেন। এতে ওই শিক্ষার্থী মুঠোফোনে তার বন্ধুদের ডেকে আনেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও উপস্থিত শিক্ষার্থীরা তাকে পিটুনি দেন। পরে নিরাপত্তা কর্মকর্তারা তাহমিদকে মুচলেকা নিয়ে তার বান্ধবীর জিম্মায় ছেড়ে দেন।

এ বিষয়ে মারধরের শিকার তাহমিদ আহমদ বলেন, উনি (সুদীপ্ত শাহীন) আমাকে জিজ্ঞাসা করেছেন আমি কে। আমি আসলে বুঝে উঠতে পারিনি উনি কে। পরে বুঝেছি উনি এখানকার অথরিটি। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদীপ্ত শাহীন বলেন, ওই ছেলেকে তার বান্ধবীর জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

পিডিএসও/হেলাল