‘শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামলে দায় প্রতিষ্ঠান প্রধানদের’

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ কথা জানিয়েছেন

প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০১৮, ২০:৪৭ | আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০১৮, ২২:৩৮

অনলাইন ডেস্ক

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষার্থীরা আগামীকাল সোমবার থেকে আন্দোলনে নামলে তার দায়িত্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের নিতে হবে। তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের বোঝাতে হবে। যদি শিক্ষার্থীদের বোঝাতে না পারেন তাহলে প্রধান শিক্ষক হয়েছেন কেন?’

রোববার রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ঢাকা মহানগরীর সব কলেজের (সরকারি-বেসরকারি) অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

এদিকে, নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় থাকা সবাই শিক্ষার্থী কি না, আন্দোলনের অষ্টম দিনে প্রশ্ন তুলেছেন বৈঠকে আসা কয়েকটি কলেজের অধ্যক্ষরা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের বোঝাতে অভিভাবকদের নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠাগুলোর পরিচালনা পর্যদের সভাপতিকেও ভূমিকা রাখার দাবি তাদের। 

‘শিক্ষার্থীদের অবশ্যই শিক্ষকদের কথা শুনতে হবে’ উল্লেখ করে মন্ত্রী নাহিদ  বলেন, ‘মিথ্যা গুজবে শিক্ষার্থীদের বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। কোনো কোনো মহল এর সুবিধা নিতে পারে। তাই শিক্ষার্থীদের এখন ক্লাসে ফিরতে হবে, ঘরে ফিরতে হবে। তাদের দাবি সরকার মেনে নিয়েছে। তার বাস্তবায়নে কাজ চলছে।’ 

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘তারা যে আন্দোলন করছে তা যৌক্তিক। আমরা তাদের দোষারোপ করছি না। তারা যৌক্তিক দাবিতে রাস্তায় নেমেছে। শিক্ষা পরিবারের সদস্য হিসেবে আমরা তাদের একা ছেড়ে দিতে পারি না।’

এই বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মাহবুবুর রহমানের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে অঘোষিত পরিবহন ধর্মঘট বন্ধ করা, পরিবহন শ্রমিকদের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের কাউন্সিলিং করানোর পরামর্শ রেখেছেন কলেজপ্রধানরা। নিরাপদ সড়কের দাবিতে টানা আট দিন ধরে শিক্ষার্থীরা সড়কে অবস্থান নেওয়ায় ঢাকা মহানগরীর সরকারি-বেসরকারি স্কুল-কলেজের প্রধানদের নিয়ে এই সভা হয়। 

পিডিএসও/তাজ