দুই সুইডিশ নাগরিকের গাড়ি আটকালো শিক্ষার্থীরা

প্রকাশ : ০৪ আগস্ট ২০১৮, ১৭:১৫

ঢাবি প্রতিনিধি

দুই সুইডিশ নাগরিকের গাড়ি আটকে দিয়েছে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।  শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে গাড়িটি শাহবাগ পার হওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বেলা ১২ টার দিকে গাড়ির লাইসেন্স পরীক্ষা করার জন্যে আন্দোলনকারীরা গাড়ি থামানোর সংকেত দেয়। কিন্তু চালক গাড়ি না থামিয়ে বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। এত শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ধাওয়া করে গাড়িটি আটক করে।  পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে গাড়িটি শাহবাগ থানায় নিয়ে আসা হয়।

পুলিশ জানায়, গাড়ির ভেতর দুজন রয়েছেন। তারা দুজনই সুইডিশ নাগরিক। আমরা প্রাথমিকভাবে জেনেছি তারা ইউএন কর্মকর্তা। যিনি গাড়ি চালাচ্ছিলেন, তার কাছে ডাইভিং লাইসেন্স বা গাড়ির কাগজপত্র ছিলো না। ইউএনের দায়িত্বশীলদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। তাদের নিরাপদে সুইডেন দূতাবাসে পৌঁছে দেওয়া হবে।

পুলিশ আরো জানায়, তারা এখনও গাড়ির ভেতরে অবস্থান করছেন। ভয় পেয়ে এখনও তারা গাড়ি থেকে নামছেন না। আমরা তাদের আশ্বস্ত করার চেষ্টা করছি।

গত ২৯ জুলাই দুপুরে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের অদূরে বিমানবন্দর সড়কে (র‌্যাডিসন হোটেলের উল্টোদিকে) বাসচাপায় রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। ওইদিন দুপুর সাড়ে ১২টায় বিমানবন্দর সড়কের বাঁ-পাশে বাসের জন্য অপেক্ষা করার সময় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস তাদের চাপা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট চালকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণ ও নৌমন্ত্রীর অনৈতিক বক্তব্যের প্রতিবাদসহ ৯ দফা দাবি জানায় শিক্ষার্থীরা। গত সাত দিন ধরে শিক্ষার্থীরা রাজধানীর সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে আসছে।

পিডিএসও/রানা