স্ত্রীর সামনে স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশ : ১৭ আগস্ট ২০১৭, ০৯:৫৪

নরসিংদী প্রতিনিধি

নরসিংদীতে শ্বশুর বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার পথে স্ত্রীর সামনে সুজন সাহা (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শহরতলীর চিনিশপুর গ্রামের কালিবাড়ি মন্দিরসংলগ্ন এলাকায় হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনা ঘটে। নিহত সুজন সাহা ঢাকা পীরের বাগ এলাকার বিমল সাহার ছেলে। স্ত্রীর পরকীয়ার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়েছে বলে দাবি করেছেন নিহতের স্বজনরা।

নিহতের বড় বোন সীমা সাহা জানিয়েছেন, প্রায় পাঁচ মাস পূর্বে নরসিংদীর রাজাদী এলাকার কাশীনাথ সাহার মেয়ে অদিতি সাহাকে বিয়ে করে সুজন। বিয়ের পর থেকেই অদিতি শাশুড়ীর মোবাইল নিয়ে দীর্ঘ সময় সবার আড়ালে গিয়ে কথা বলেন। এরপর সুজন স্ত্রীকে ১৬ হাজার টাকায় একটি মোবাইল কিনে দিলে বাথরুমে ঢুকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলেন অদিতি। এতে বাড়ির সবাই বিরক্ত হয়ে তার কাছ থেকে মোবাইল নিয়ে যান। এতে স্বামী-শাশুড়ীর সঙ্গে মনোমালিন্য হয় তার।

গতকাল অদিতি নিজের গহনা ও সকল কাপড়-চোপড় নিয়ে মনসা পূজার নাম করে বাবার বাড়ি উদ্দেশে বেরিয়ে আসে। পরে বাধ্য হয়ে স্বামী সুজন তাকে নিয়ে বাবার বাড়িতে আসেন। রাতে ট্রেন থেকে নেমে সাড়ে ১১টার দিকে রিকশাযোগে রজাদী যাবার পথে চিনিশপুর কালি বাড়ির কাছে দুর্বৃত্ত তাদের পথরোধ করে। অদিতিকে রিকশা থেকে ফেলে দিয়ে স্বামী সুজনকে এলোপাথারী কুপিয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় ফেলে রেখে যায়। তার চিৎকারে পথচারী ও পার্শ্ববর্তী কালি বাড়ির লোকজন দৌড়ে এসে সুজন সাহাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. শাহরিয়ার আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও হাসপাতাল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে। তবে এ ঘটনায় এখনও কাউকে আটক করা যায়নি।

পিডিএসও/হেলাল