গুলিবিদ্ধসহ আহত ৫

কুষ্টিয়ায় আ.লীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ, নিহত ১

প্রকাশ : ১৯ জুন ২০১৭, ১৪:২৭

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ায় প্রভাব বিস্তার ও বিদ্যমান কোন্দলকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, ভাংচুর, লুটপাট, গুলাগুলির ঘটনায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে একজন নিহত ও গুলিবিদ্ধ ১ জনসহ ৫ জন আহত হয়েছে। নিহত শাহিন (২৮) মিরপুর উপজেলার সাবেক ইউপি সদস্য সাহার মেম্বারের ছেলে এবং গুলিবিদ্ধ আতিয়ার মালিথা (৪৫) আমলা গ্রামের মৃত সামসুদ্দিন মালিথার ছেলে। 

রোববার বিকেল ৪টার দিকে মিরপুর উপজেলার আমলা বাজারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন এবং যুগ্ম সধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান আনারুল মালিথার সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা হয়েছে। 

আনারুল গ্রুপের প্রধান ইউপি চেয়ারম্যান আনারুল ইসলাম মালিথার অভিযোগ, জেলার শ্রেষ্ঠ ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় সরকারিভাবে দুটি দেশ ভ্রমণ শেষে ফেরার পথে গতকাল দুপুরে আমার সমর্থক ও শুভাকাক্সক্ষীরা সংবর্ধনা দিতে আমলা বাজার থেকে আসার পথে উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফীনের নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র দুর্বৃত্ত হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটসহ ধারালো অস্ত্রের আঘাত ও গুলি বর্ষণ করে একজনকে হত্যা এবং ৪জনকে গুরুতর জখম করেছে। আমার জনপ্রিয়তা দেখে ঈর্ষান্বিত হয়েই তিনি এই হামলা চালিয়েছে বলে দাবি তার। তবে, এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফীনের মুঠোফোনে ০১৯১৬৭০৮১৩৩ কল করলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

মিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম জানান, দুপুরে আনারুল মালিথা এবং কামারুল আরেফীনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গুলাগুলির ঘটনায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত শাহিনকে হাসপাতালে নেয়ার পথে মৃত্যু হয় এবং আতিয়ার মালিথা(৪৫) গুলিবিদ্ধসহ ৩ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

পিডিএসও/হেলাল