ভালুকায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, বিচার না পেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা কলেজছাত্রীর

প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০২০, ১৮:৫১

ভালুকা(ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
অভিযুক্ত মঞ্জুরুল ইসলাম রানা

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের কাশর উত্তরপাড়া গ্রামে এক কলেজছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ওই ঘটনায় নির্যাতিতা কলেজছাত্রী পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ধনুয়া উত্তরপাড়া গ্রামের এ ঘটনা ঘটে। শ্রীপুর রহমত আলী সরকারি কলেজের অনার্স পড়ুয়া ওই ছাত্রী (১৮)। 

জানা যায় উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের কাশর উত্তরপাড়া গ্রামের মৃতঃ চাঁন মিয়া (সাবেক মেম্বার) এর ছেলে। মঞ্জুরুল ইসলাম রানার সাথে দীর্ঘ তিন বছর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে লম্পট মঞ্জুরুল ইসলাম রানা। পরে এই বিষয়ে পরিবারের মাঝে জানাজানি হলে মেয়ের পরিবার ঘটনাটি ছেলের পরিবারকে জানান, কিন্তু বিষয়টি ছেলের পরিবার এই সম্পর্ক মেনে নিতে রাজিনা। মঙ্গলবার ওই ছাত্রী ছেলের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন করে। 
ছেলের পরিবার এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় মেয়েকে পুলিশ দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেন।

বিয়ে করার জন্য চাপ দিলে মঞ্জুরুল বিয়েতে অস্বীকৃতি জানিয়ে পালিয়ে যায়। পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে মেয়ে তার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বর্তমানে বিষয়টিকে এলাকার কতিপয় ব্যক্তি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য মেয়ের পরিবারকে চাপ সৃষ্টি করছে বলে জানান মেয়ের পরিবার।

স্থানীয়রা জানান, ভুক্তভোগী কোনো উপায় না পেয়ে বুধবার  বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতে অনশন করে। খবর পেয়ে ভালুকা থানা পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে সুষ্ঠু সমাধানের আশ্বাস দিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। সুষ্ঠু বিচারের জন্য মেয়ের পরিবার থেকে পুলিশের কাছে অভিযোগ দিলেও তা থানায় গ্রহণ করা হয়নি। থানায় অভিযোগ না নেয়ার কারণে কোনও প্রকার বিচার না পেয়ে দুপুরের দিকে মেয়েটি গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে স্থানীয় লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে।