ধামরাইয়ে ৩ দিনে ৩ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে পৃথক মামলা

প্রকাশ : ২৩ মার্চ ২০২০, ১৭:৫৫ | আপডেট : ২৩ মার্চ ২০২০, ১৯:২১

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি

ঢাকার ধামরাইয়ে ৩ দিনে পৃথক ৩ টি ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে।

জানা গেছে, ধামরাই উপজেলা কুল্লা ইউনিয়নের কেলিয়া গ্রামের ৯ম শ্রেণির ছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে দিনদুপুরে ঘরের ভেতরে ডেকে শ্লীতাহানি করে ধর্ষণের চেষ্টা করে এক তরুণ। গত শুক্রবার কেলিয়া গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে ফরহাদ হোসেন এ ঘটনা ঘটায়।

এ ব্যাপারে মেয়ের বাবা বাদী হয়ে ধামরাই থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায়ও ধামরাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে বলে জানান ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহা।

পরদিন শনিবার ঢাকার ধামরাইয়ে কুশুরা এলাকায় মাকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রোবার ধামরাই উপজেলার কুশুরা ইউনিয়নের কুশুরা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। অভিযুক্ত ধর্ষণকারীর একই গ্রামের মৃত ময়জুদ্দিনের ছেলে মো. রফিকুল ইসলাম (৫৫) রুফু।

কাওয়ালী পাড়া পুলিশ পরিদর্শন কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই রাসেল মোল্লা জানান, এ ঘটনায় ধামরাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। ভুক্তভোগী শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে গত শনিবার পৌর শহরের ছয়বাড়িয়া এলাকায় ১০বছর বয়সী ঘুমন্ত মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে সৎ পিতার বিরুদ্ধে। শনিবার ভোরে মেয়েকে ঘরে রেখে মা কর্মস্থলে গেলে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওই অভিযুক্ত সৎ পিতা মোজাহার হোসেন মুন্নু সিরামিক কারখানার কনস্ট্রাকশন সেকশনের শ্রমিক। তার বাড়ি নীলফামারী জেলায়।

এমন সংবাদ পেয়ে ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা টিম পাঠিয়ে ওই ধর্ষক পিতাকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে। তিনি জানান, এ ঘটনায় ধামরাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছে।

পিডিএসও/তাজ

সর্বাধিক পঠিত