টেকনাফে ২ আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

প্রকাশ : ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১০:১২ | আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৫১

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক
বন্দুকযুদ্ধে আহত পুলিশ সদস্যরা

কক্সবাজারের টেকনাফে মাদক মামলার দুই আসামি গ্রেফতার হওয়ার পর পুলিশের অভিযানের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। বুধবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের সাতঘরিয়া পাড়ায় গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন—হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কাঞ্জরপাড়ার শামসুল আলমের ছেলে জিয়াবুল হক ওরফে বাবুল এবং বাহারছড়া ইউনিয়নের শিলখালী এলাকার কেফায়েতুল্লাহর ছেলে আজিমুল্লাহ।

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, বাবুল একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। আর আজিমুল্লাহ তার মাদক ব্যবসার সহযোগী। দুজনের বিরুদ্ধেই মাদক আইনে বেশ কয়েকটি মামলা আছে। এর বাইরেও বাবুলের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে ৫টি মামলা রয়েছে থানায়।

ঘটনার বিবরণে ওসি বলেন, পলাতক আসামি বাবুল ও আজিমুল্লাহকে বুধবার রাতে টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ের কাঞ্জরপাড়া থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তাদের নিয়েই ভোরের দিকে হোয়াইক্যংয়ের সাতঘরিয়া পাড়াসংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানে যায় পুলিশের একটি দল। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানো মাত্র তাদের সহযোগীরা গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও তখন আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। কিছু সময় পর গোলাগুলি থামলে বাবুল ও আজিমুল্লাহকে সেখানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায পড়ে থাকতে দেখা যায়।

দুজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি ডাবল শুটার গান, পাঁচটি দেশি বন্দুক, ৩৬টি গুলি, দুটি রাইফেলের গুলি এবং পাঁচ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। এ অভিযানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তাইয়ান আদনান, এসআই মোহাম্মদ সাব্বির, কনস্টেবল আবদুল শুক্কুর ও মোহাম্মদ তাইজুল আহত হয়েছেন বলে জানান ওসি।

পিডিএসও/হেলাল