মাদকাসক্ত ছেলের ছুরিতে বাবা নিহত

প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০১৯, ০৮:৩৭

কক্সবাজার প্রতিনিধি

কক্সবাজারের রামু উপজেলার খুনিয়া পালং ইউনিয়নের ধেছুয়াপালং গ্রামে ইয়াবা ব্যবসায়ী ও মাদকাসক্ত ছেলের ছুরিকাঘাতে বৃদ্ধ বাবা মো. ফেরদৌস (৬৫) নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

গত ১ আগস্ট দিনগত রাত ২টার দিকে তিনি নেশাগ্রস্ত ছেলের ছুরিকাঘাতে আহত হন। প্রথমে তাকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ও পরে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

নিহত ফেরদৌস খুনিয়াপালং ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার আবদুল্লাহ বিদ্যুতের বাবা। ঘাতক ছেলে আবদুল কাদের পলাতক রয়েছে।

জানা গেছে, ইয়াবা সেবনে বারণ করায় রামু খুনিয়া পালং ইউনিয়নের ধেছুয়াপালং গ্রামের বৃদ্ধ ফেরদৌসকে পেটে ছুরিকাঘাত করেন তার ছেলে নেশাগ্রস্ত ও ইয়াবা ব্যবসায়ী আবদুল কাদের। ১ আগস্ট দিনগত রাত ২টার দিকে খুনিয়াপালংয়ের ধেছুয়াপালং নিজ বাড়িতে এই ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। পরিবারের সদস্যরা ও প্রতিবেশীরা গুরুতর আহত ফেরদৌসকে উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। সেখানে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক চমেক হাসপাতালে রেফার করেন।

এলাকাবাসী জানিয়েছেন, ইয়াবা আসক্ত আবদুল কাদের ওইদির রাতে বাড়িতে বসে ইয়াবা সেবন করছিলেন। বৃদ্ধ বাবা ফেরদৌস তার ছেলে কাদেরকে ইয়াবা সেবন না করার জন্য বললেই ক্ষুব্ধ হয়ে বাবার পেটে উপর্যপুরি ছুরিকাঘাত করে কাদের।

খুনিয়াপালং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুল মাবুদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বাবাকে ছুরিকাঘাত করার ঘটনা খুবই অমানবিক। ঘাতক ছেলে কাদেরকে দ্রুত গ্রেফতার করা হোক।

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়েরের বক্তব্য নেওয়ার জন্য তার মোবাইলে একাধিকবার রিং করার পরও রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

পিডিএসও/হেলাল