ছাত্রলীগ-যুবলীগ বিরোধ

দেবহাটায় ১৪৪ ধারা জারি

প্রকাশ : ২৬ জুন ২০১৯, ১০:৪৬

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

ছাত্রলীগ ও যুবলীগের দুই গ্রুপের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে উত্তপ্ত সাতক্ষীরার দেবহাটা। হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বুধবার সকাল থেকে উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইকবাল হোসেন উপজেলায় সভা-সমাবেশ, আগ্নেয়াস্ত্র বহনে নিষেধাজ্ঞা আরোপসহ ১৪৪ ধারা জারি করেন। পাশাপাশি উপজেলায় দুই গ্রুপের নেতাকর্মীর বিরাজমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ জননিরাপত্তা নিশ্চিতে উপজেলার সখিপুর মোড়, সরকারি খানবাহাদুর আহছানউল্লা কলেজ মোড়, পারুলিয়া শহীদ আবু রায়হান চত্বরসহ বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে উপজেলাজুড়ে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

দেবহাটা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিনুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। অপরদিকে, ঘটনার বিষয়ে দেবহাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সুমনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও ফোন রিসিভ করেন সজীব নামের একজন। তিনি বলেন, ভাই ঘুমাচ্ছেন এখন কথা বলা যাবে না। তবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল ইসলাম বলেন, ছাত্রলীগের সঙ্গে যুবলীগ সভাপতি মিজানুর রহমান মিনুর মধ্যে বিরোধকে কেন্দ্র করে দেবহাটায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের বিরোধের জেরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ঝুকিপুর্ণ এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। বর্তমানে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। 

উল্লেখ্য, অভ্যন্তরীণ বিরোধকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার সরকারি খানবাহাদুর আহছানউল্লা কলেজ, সখিপুর মোড় ও পারুলিয়াতে একাধিকবার হামলা-পাল্টা হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সুমনের বাবা শামছুর রহমান খোকন, সরকারি খানবাহাদুর আহছানউল্লা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ফয়জুল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক আসিফ, ছাত্রলীগ নেতা রনি আহমেদসহ দুই গ্রুপের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়।

পিডিএসও/হেলাল