নুসরাত হত্যা : আর্থিক লেনদেন তদন্তে সিআইডি

প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৫৩

অনলাইন ডেস্ক

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আর্থিক লেনদেনের বিষয়টি অনুসন্ধান করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম ইউনিট।

হত্যাকাণ্ডে কারা টাকা দিয়েছেন, তা জানতে চেষ্টা করছেন কর্মকর্তারা। সিআইডি কর্মকর্তারা বলছেন, হত্যায় অর্থ লেনদেন হয়েছে বলে যে অভিযোগ রয়েছে, সেই অর্থের উৎস খুঁজে বের করবে সিআইডি।

আলোচিত এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে, চারজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। অভিযোগ উঠেছে, নুসরাত হত্যায় অর্থের জোগান দিয়েছিলেন স্থানীয় কয়েকজন।

প্রসঙ্গত, সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ এস এম সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে ‘শ্লীলতাহানির’ অভিযোগ এনে গেল মার্চ মাসে সোনাগাজী থানায় একটি মামলা করে নুসরাতের পরিবার। মামলা তুলে না নেয়ায় অধ্যক্ষের অনুসারীরা গত ৬ এপ্রিল সকালে পরীক্ষাকেন্দ্রে নুসরাতের গায়ে পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগিয়ে দেয়।

অগ্নিদগ্ধ নুসরাতকে প্রথমে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। তার শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে যাওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে সেদিনই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

এরপর প্রধানমন্ত্রী উন্নত চিকিৎসার জন্য নুসরাতকে সিঙ্গাপুরে নেওয়ার নির্দেশ দিলেও তার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাকে সিঙ্গাপুর নেওয়া সম্ভব হয়নি। পরে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ এপ্রিল মারা যান নুসরাত।

পিডিএসও/তাজ