অবৈধ সম্পদের মালিক আবজাল দম্পতি এখন লাপাত্তা

প্রকাশ : ২৩ মার্চ ২০১৯, ১২:১২

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশ-বিদেশে বিপুল পরিমাণ অবৈধ সম্পদের মালিক স্বাস্থ্য অধিদফতরের বরখাস্ত হওয়া হিসাবরক্ষক কর্মকর্তা আবজাল হোসেন ও তার স্ত্রী রুবিনা খানম এখন লাপাত্তা। বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা থাকলেও এ দম্পতি দেশ ছেড়েছেন উল্লেখ করে ইমিগ্রেশনের বিশেষ পুলিশ সুপারের কাছে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসাবরক্ষক কর্মকর্তা পদে থেকেই অস্ট্রেলিয়া-সিডনির মতো জায়গায় বাড়ি করেছেন। দুদকের জিজ্ঞাসাবাদে সে কথা স্বীকারও করেছেন তিনি। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে রয়েছে আবজালের সম্পদের পাহাড়। কোথাও নিজ নামে, আবার কোথাও স্ত্রীর নামে রয়েছে এসব সম্পদ।

এরই মধ্যে দুদক যেসব সম্পদের তথ্য পেয়েছে সেগুলোতে আদালতের নির্দেশে ক্রোকের নোটিস টানিয়েছে। সম্পদ ক্রোকের কাজ শুরু করলেও আবজাল দম্পতিকে কোথাও খুঁজে পাচ্ছে না বলে জানান দুদক।

উত্তরায় ১৩ নম্বর সেক্টরের ১১ নম্বর রোডের ভবনটি স্ত্রীর নামে ২০১০ সালে কিনেছিল আবজাল। এ ভবনের ছয় তলায় থাকতেন আবজাল দম্পতি। জানুয়ারির মাঝামাঝিতে পরিবার নিয়ে বাসা ছেড়েছেন তিনি। উত্তরায় একই সেক্টরের ১৬ নম্বর সড়কেও আরেকটি ভবন রয়েছে আবজালের। সেখানেও খোঁজ মেলেনি। দেড় মাস ধরে দেশের কোথাও আবজালের অবস্থান শনাক্ত করতে পারেনি দুদক।

চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি আবজাল দম্পতির বিদেশযাত্রার ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে পুলিশের বিশেষ শাখায় চিঠি দেয় দুদক। এরপর ১০ জানুয়ারি তাকে জিজ্ঞাসাবাদও করেছে সংস্থাটি। তারপর থেকে আবজাল দম্পতির আর হদিস নেই।

দুদকের অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা ও উপপরিচালক মো. তৌফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সম্পদ বিবরণী দাখিল করার পর থেকেই তারা পলাতক। আমরা তাদের অবস্থান জানার জন্য বিভিন্ন মাধ্যম থেকে তথ্য সংগ্রহ করছি।’

দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও এ দম্পতির দেশ ছাড়ার তথ্য আছে উল্লেখ করে সম্প্রতি পুলিশের বিশেষ শাখার ইমিগ্রেশন শাখায় চিঠি পাঠায় দুদক। এতে পাসপোর্টের নম্বর দিয়ে এ দম্পতির বিদেশগমনের তথ্য চেয়েছে দুদক।

দুদকের কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান গণমাধ্যমকে বলেন, এই দম্পতির যে অঢেল সম্পত্তি রয়েছে, তার উৎসের খোঁজ আমরা করছি। সে এখন পালিয়ে আছে, কিন্তু একসময় ঠিকই ধরা পড়বে। আর আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই আমরা এই দম্পতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। তবে, এ ব্যাপারে পুলিশের বিশেষ শাখার কাছ থেকে এখনো কোনো তথ্য পায়নি।

পিডিএসও/তাজ