গাজীপুরে শিশু খালাত বোনকে ধর্ষণ ও হত্যায় কিশোর গ্রেপ্তার

প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:৫৫ | আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:০৮

গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের শরিফপুর এলাকায় চাঞ্চল্যকর ৫ বছরের শিশু ধর্ষণ ও হত্যার রহস্য উদঘাটন এবং আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার বিকেলে র‌্যাব-১ এর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার রিফাত (১৬) বরিশালের মুলাদী থানার ধলেশ্বর এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। সে শরিফপুর এলাকায় বসবাস করত। ভিকটিম সম্পর্কে তার খালাত বোন ছিল।

র‌্যাব জানায়, গত ২৭ জানুয়ারি শরিফপুর এলাকায় একটি কাঁশবন থেকে ৫ বছরের শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। শিশুটি স্থানীয় একটি স্কুলের নার্সারি শ্রেণির ছাত্রী ছিল। ভিকটিমকে ধর্ষণের পর মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছিল।

ঘটনার দিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভিকটিম তার বাসার পাশে নানার বাড়িতে গোসল করার উদ্দেশ্যে যায়। পরবর্তীতে নানার বাড়িতে তাকে না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে বিকেল ৩টার দিকে পার্শ্ববর্তী কাশবনে মেয়েটির লাশ পাওয়া যায়। 

এ হত্যাকাণ্ড এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। ঘটনার সাথে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-১ ছায়া তদন্ত শুরু করে।  এরই ধারাবাহিকতায় গত ৬ ফেরুয়ারি রাত সাড়ে ১১ টার দিকে র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল সিটি করপোরেশনের বোর্ডবাজার এলাকা হতে ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডে জড়িত আসামি রিফাতকে গ্রেপ্তার করে। 

র‌্যাব জানায়, রিফাত জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, সে স্থানীয় তাকফিয়াতুল উলুম মাদ্রাসার ৫, শ্রেণীর ছাত্র। ভিকটিম সম্পর্কে রিফাতের খালাত বোন।

ঘটনার দিন রিফাত তাকে নানীর কাছে নিয়ে যাবার মিথ্যা কথা বলে ফুসলিয়ে পার্শ্ববর্তী কাশফুলের জঙ্গলে নিয়ে যায় এবং মুখ চেপে ধর্ষণ করে। এ সময় ভিকটিম কান্নাকাটি করে এবং বলে বাড়িতে গিয়ে সবাইকে বলে দেবে। এ সময় রিফাত পাশে পড়ে থাকা ইট দিয়ে ভিকটিমের মাথায় উপর্যুপরি আঘাত করে হত্যা করে এবং লাশ কাশবনে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। 

পিডিএসও/তাজ