আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হাবিব হত্যা, গ্রেফতার ৫

প্রকাশ : ২০ নভেম্বর ২০১৮, ২০:২৯

গাজীপুর প্রতিনিধি

টঙ্গীর জামাইবাজারে শনিবার রাতে হাবিব নামে একজনকে কুপিয়ে হত্যা এবং আরো ৬ জনকে আহত করার ঘটনায় মূল পরিকল্পনাকারী সুমন ওরফে সালসা সুমন ওরফে সালসা বাবুসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় র‌্যাব-১ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন— চাঁদপুর সদর থানার ধলধারবাড়ি এলাকার হারুনুর রশিদের ছেলে সুমন ওরফে সালসা সুমন ওরফে সালসা বাবু (২১), কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া থানার চরকাওনা (মুনীরকান্দা) এলাকার বাবুল মিয়ার ছেলে ইয়াছিন (১৯), একই জেলার আটরবাড়ি (ফতেহপুর) এলাকার ইছহাকের ছেলে ইসমাইল হোসেন মিনহাজ (১৮), ভোলার সফিকুল ইসলামের ছেলে মাছুম (১৮), গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের পূবাইলের চান্দের আড়ি এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে রফিকুল ইসলাম মুন্না (১৯)। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে প্রথম ৪ জন টঙ্গীর বিভিন্ন এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন।

র‌্যাব জানায়, ১৭ নভেম্বর (শনিবার) জামাইবাজারের ‘সন্ত্রাসী’ সুমন ওরফে সালসা সুমন ওরফে সালসা বাবু ও কৃষ্ণার নেতৃত্বে দলবল নিয়ে হাবিবুর রহমান, রোহান, হাসান, মাহফুজ, জিসান, সোহেল ও হাফেজ আহমেদ বাবুদের উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় তাদের এলোপাথাড়ি অস্ত্রের আঘাতে হাবিবুর রহমান হাবিব (১৮) নিহত হয় এবং আরও ৬ জন আহত হয়। এ হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে নিহতের মা হাসিনা বেগম বাদী হয়ে টঙ্গী পূর্ব থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এদিকে র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার ভোর ৩টার দিকে টঙ্গীর আরিচপুর ও আশপাশের এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ওই ৫ জনকে গ্রেফতার করে।

র‌্যাব আরো জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত বলে স্বীকার করেছেন। মূলত এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হত্যাকাণ্ডটি হয়। হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী ছিল গ্রেফতারকৃত সুমন ওরফে সালসা সুমন ওরফে সালসা বাবু। 

বিগত প্রায় ১/২ বছর ধরে গ্রেফতারকৃত সুমন ওরফে সালসা সুমন ওরফে সালসা বাবু ও কৃষ্ণার নেতৃত্বে প্রায় ২০/২৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ চক্র টঙ্গীর আরিচপুর এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে আসছিল। সুমনের নেতৃত্বাধীন দলটি আরিচপুর এলাকার চিহ্নিত দুর্ধর্ষ এবং সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপ বলে পরিচিত। 

পিডিএসও/অপূর্ব