আরেক ঐশী : মাদকাসক্ত মেয়ের হাতে মা খুন

প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৯:৫৩

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

রাজধানীতে বাবা মাকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করে ব্যাপকভাবে আলোচনায় এসেছিল তাদের মাদকাসক্ত মেয়ে ঐশী। সন্তানের মাদকাসক্তের পরিণতি নিয়ে টকশো থেকে যোগাযোগের নানা মাধ্যমে তুমুল আলোচনা সমালোচনা হয়। ঐশীর মতোই মাদকের অবক্ষয়ের আরেকটি দুর্ঘটনার জন্ম হলো সাতক্ষীরায়।

বেপোরোয়া চলাফেরায় বাঁধা দেওয়ায় এক মাদকাসক্ত মেয়ে তার মাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। ওই মেয়ের নাম টুম্পা খাতুন (২৪)। সে এখন পলাতক, তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে । পুলিশ এখনো তাকে ধরতে পারেনি।

টুম্পার লোহার রডের আঘাতে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে মা মমতাজ বেগম (৪৮)। মাথায় ও ঘাড়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে মা কয়েকবার বমি করেন। এরপর আর জ্ঞান ফেরেনি। স্থানীয়রা উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। সেখানে নেওয়ার পথে রাতে মারা যায় মমতাজ বেগম। গত সোমবার সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানার নগরঘাটা এলাকায় এমন নির্মম ঘটনা ঘটে।

মমতাজ বেগমের স্বামী আবদুস সবুর সরদার মারা গেছেন কয়েক বছর আগে। তাদের একমাত্র ছেলে শরীফও মাদকাসক্ত। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত বুধবার রাতে পাটকেলঘাটা থানার এসআই আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে টুম্পা খাতুনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করেন।

স্থানীয়রা জানান, টুম্পা খাতুন ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকসেবন করত। তার জীবনযাপন ছিল বেপোরোয়া। তিন বছর আগে স্বামী তাকে তালাক দেয়। সমাজের উচ্চপর্যায়ের মানুষের সঙ্গে তার সখ্যতা ছিল। এগুলোর বিরোধিতা করায় মাকে প্রায়ই মারধর করত টুম্পা। পুলিশ মরদেহ উদ্ধারকালে টুম্পা পালিয়ে যায়।

পাটকেলঘাটা থানার ওসি রেজাউল ইসলাম জানান, নিহতের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল। পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। আসামি টুম্পাকে গ্রেফতারে পুলিশ অভিযানে নেমেছে।

পিডিএসও/তাজ