কয়লা কেলেঙ্কারি : ৭ কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

প্রকাশ : ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৮:৪৬ | আপডেট : ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৮:৫৪

অনলাইন ডেস্ক

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির কয়লা কেলেঙ্কারির ঘটনায় পেট্রোবাংলার ৭ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

ঢাকায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের উপপরিচালক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সামছুল আলম ওই সাতজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন বলে দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানান।

তিনি বলেন, পেট্রোবাংলার উপমহাব্যবস্থাপক (মেনটেইন্যান্স অ্যান্ড কন্টাক্ট ম্যানেজমেন্ট) মো. নাজমুল হক; ব্যবস্থাপক (কোল হ্যান্ডলিং ম্যানেজমেন্ট) মো. শোয়েবুর রহমান এবং ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) মো. সাইদ মাসুদ বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আসেন।

বেলা দেড়টার দিকে আসেন উপব্যবস্থাপক (মেনটেইন্যান্স অ্যান্ড অপারেশন) মো. মাহাবুব হোসেন, সহকারী ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) মো. মনিরুজ্জামান এবং সহকারী ব্যবস্থাপক (কোল হ্যান্ডলিং ম্যানেজমেন্ট) মো. মাহাবুব রশিদ।আর ব্যবস্থাপক (স্টোর) মো. দিদারুল কবির বেলা পৌনে ২টায় দুদক কার্যালয়ে এলে তার জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়।

গত ১৩ অগাস্ট এই সাত কর্মকর্তাসহ পেট্রোবাংলার ৩২ জনকে তলব করে চিঠি দেয় দুদক। বাকিদের আগামী ২৮, ২৯ ও ৩০ আগস্ট হাজির হতে বলা হয়েছে।

এর আগে কয়লা দুর্নীতির ঘটনায় গত ২৪ জুলাই দিনাজপুরের পার্বতীপুর মডেল থানায় বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ ১৯ জনকে আসামি করে দুর্নীতি দমন আইনে মামলা করেন কোম্পানিটির ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মোহাম্মদ আনিছুর রহমান। পরে মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পান দুদকের উপপরিচালক মো. সামছুল আলম।

আসামিরা ক্ষমতার অপব্যবহার, জালিয়াতি, বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে ১ লাখ ৪৪ হাজার ৬৪৪ মেট্রিক টন কয়লা খোলাবাজারে বিক্রি করে ২৩০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে এই মামলায়।

পিডিএসও/তাজ