মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রীকে মারধর, হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৮, ২০:২৪

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা আদর্শ গ্রামে এক অসহায় মুক্তিযোদ্ধার  বিধবা স্ত্রী জয়নব বেওয়া (৬০) ও তাঁর পরিবারের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলার শিকার মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী বর্তমানে গুরুতর আহত অবস্থায় হাতীবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।  রোববার বিকেলে উপজেলার বড়খাতা আদর্শ গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় হাতীবান্ধা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস আই) মিজানুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদশৃন করেছেন।

জানা গেছে, উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের আদর্শগ্রাম এলাকার জহুরুল মিয়ার জামাতা জাহাঙ্গীর হোসেনের সাথে মুক্তিযোদ্ধা মৃত আরফান আলী ছেলে জয়নাল আবেদিন (৩৩) এর সাথে টাকা পয়সার লেনদেনের জের ধরে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে জাহাঙ্গীর হোসেন ও তার দলবল নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার ছেলে জয়নাল আবেদিনকে ধরতে গিয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালান। এ সময় হামলাকারীরা ঘরের আসবারপত্র ভাংচুর ও প্রায় ২ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে জয়নাল আবেদিনকে ঘর থেকে বের করে নিয়ে যাওয়ার সময় তার মা মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী জয়নব বেওয়া বাধা দিলে তারা তাকেও বেধরক মারধর করেন। পরে স্থানীয়রা আহত মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রীকে উদ্ধার করে হাতীবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী জয়নব বেওয়া (৬০) ৯ জনের নাম উল্লেখ্য করে সোমবার সন্ধ্যায় হাতীবান্ধা থানায় একটি  লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

মুক্তিযোদ্ধার বৃদ্ধ স্ত্রী জয়নব বেওয়া বলেন, জাহাঙ্গীর ও তার লোকজন আমার বাড়িতে হামলা করে আমার চুল ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। তারপর তারা বাঁশ দিয়ে আমার মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় বেদম মারপিট করলে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। পরে কে বা কাহারা আমাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। আমাদের ন্যায় বিচার পাইয়ে দেবার মত কেউ নেই। আমরা অসহায়, আপনারা আমার ছেলেকে আপনারা বাঁচান।

বড়খাতা ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রহমান বলেন, ওই পরিবারকে বার বার হেয় প্রতিপন্ন করা হচ্ছে। এ ঘটনায় ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষ থেকে আমরা নিন্দা জানাই, পাশাপাশি দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।

হাতীবান্ধা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) ওমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় দুই পক্ষই থানায় অভিযোগ করেছে। ঘটনা স্থলে অফিসার পাঠানো হয়েছে। উভয় পক্ষের অভিযোগ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

পিডিএসও/রানা