নারায়ণগঞ্জে নৈশ প্রহরীকে হত্যা

প্রকাশ : ১০ মার্চ ২০১৮, ১৮:২১

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার দেলপাড়া এলাকায় আবুল কাশেম চৌধুরী (৬০) নামে এক নৈশপ্রহরীকে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার (১০ মার্চ) সকালে দেলপাড়া টেম্পু স্ট্যান্ড সংলগ্ন বোর্ড মিল কারখানার ভেতর থেকে ওই নৈশ প্রহরীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের পরিবারের দাবি মালিকের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় কারখানার মালিক সেলিম পাঠানকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত আবুল কাশেম চৌধুরী ফতুল্লার দেলপাড়া চৌধুরীবাড়ির মৃত ইলমত চৌধুরীর  ছেলে।

এলাকাবাসী জানান, কারখানার মালিক সেলিম মিয়া সকাল ৮টার দিকে আবুল কাশেমকে ডেকে আনেন। এর পরে সাড়ে ১০টার দিকে ফ্যাক্টরীতে তার লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়া হয়। সেলিম মিয়া আবুল কাশেমসহ বহু লোকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আটকে রেখেছে। কেউ যদি পাওনা টাকা চাইতে যায় তাহলে তাকে নানা ধরনের ভয়ভীতি দেখিয়ে হয়রানি করে সে।

নিহতের ছেলে আবু মিয়া জানান, তার বাবার কাছ থেকে হাওলাত হিসাবে ৬ লাখ টাকা নেয় সেলিম পাঠান। তার বাবা সেলিম পাঠানের কারখানায় নৈশপ্রহরী হিসেবে কাজ করতেন। সেলিম পাঠানের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় প্রায় সময়ই তাদের মধ্যে তর্কবিতর্ক হতো। শনিবার সকালে ওই টাকাকে কেন্দ্র করে সেলিমসহ তার লোকজন তার বাবাকে পিটিয়ে হত্যা করে মরদেহ গুম করার চেষ্টা করে।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নৈশ প্রহরী হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যার ঘটনায় সেলিম পাঠানকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

পিডিএসও/রানা