বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১১:৪৪

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে রাঙ্গাবালী থানায় ধর্ষণের শিকার ওই মাদ্রাসা ছাত্রী বাদী হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলো রাঙ্গাবালী ইউনিয়নের গঙ্গিপাড়া গ্রামের ফেরদাউস হাওলাদার (২২), সহযোগী চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের গোলবুনিয়া গ্রামের সাইদুল ইসলাম (৪০) ও গঙ্গিপাড়া গ্রামের ফারুক হোসেন (৪৫)। এদের মধ্যে মামলার প্রধান আসামী ফেরদাউস হাওলাদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়, কয়েকমাস আগে উপজেলার চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের আলিম প্রথম বর্ষের এক ছাত্রীকে পটুয়াখালী সরকারি কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র পরিচয় দিয়ে ফেরদাউস হাওলাদার  প্রেমের প্রস্তাব দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এ প্রস্তাবেও রাজি না হলে সাইদুল ইসলাম এবং ফারুকের সহযোগীতায় ফেরদাউসের সঙ্গে ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফেরদাউস তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার দৈহিক মেলামেশা না করলে বিয়ে না করার হুমকি দিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীর ইচ্ছের বিরুদ্ধে ফেরদাউস ধর্ষণ করার সময় স্থানীয়রা হাতেনাতে ধরে ফেলে।

এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি মিলন কৃষ্ণ মিত্র বলেন, প্রধান আসামী ফেরদাউসকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্য দুই আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 

পিডিএসও/রানা