সিলেটে খাসদবির সরকারি বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ

রাতেই সিল মারা হয়েছে অভিযোগ আরিফের, কামরান বলছেন পরিবেশ সুষ্ঠু

প্রকাশ | ৩০ জুলাই ২০১৮, ১১:৩২ | আপডেট: ৩০ জুলাই ২০১৮, ১১:৪৪

সিলেট ব্যুরো

সিলেট সিটি করপোরেশনের ৫নং ওয়ার্ডের খাসদবির সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ রয়েছে। সোমবার সকাল ১০টার দিকে কেন্দ্রের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ ও ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের কারণে ভোটগ্রহণ বন্ধ সাময়িক বন্ধ করে দেয়া হয়।

জানা গেছে, সকাল ১০টার দিকে ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ছাত্রলীগ নেতা রিমাদ আহমদ রুবেল তার কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে জোরপূর্বক কেন্দ্রে প্রবেশ করে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় তারা কেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। ফলে বন্ধ হয়ে যায় ভোটগ্রহণ কার্যক্রম। এ সময় তারা অন্যান্য কাউন্সিলর প্রার্থীদের এজেন্টদের বের করে দেয়। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে কেন্দ্রে। কেন্দ্রের দ্বায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যরা বন্ধ করে দেন প্রধান ফটক। এছাড়া নগরের বেশ কয়েকটি কেন্দ্র দখল, ব্যালট পেপার ছিনতাই ও জোর করে সিল মারার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়াও কিছু কিছু কেন্দ্রে মেয়র প্রার্থীদের ব্যালেট পেপার না দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সকাল ১০টার দিকে নগরের পাইলট স্কুল কেন্দ্রে এমন মেয়র প্রার্থীদের ব্যালেট পেপার না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন ভোট দিতে আসা কয়েকজন নারী ভোটার। অপরদিকে নগরের বর্ণামালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র নগর আওয়ামী লীগ নেতা বিধান কুমার সাহার দখল করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি ও জামায়েতের এজেন্টরা। তারা বলেন তাদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া হয়েছে।

এদিকে সকালেই ভোট দিয়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনিত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। সকাল ৮টা ৫মিনিটে তার নিজের কেন্দ্র ১৮নং ওয়ার্ডের রায়নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে তিনি ভোট প্রদান করেন। সকাল ১১টা ১০ মিনিটে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শাহজালাল জামেয়া মাদরাসা সেন্টারে দুই কাউন্সিলর সমর্থদের মধ্যে মারামারি চলছে।

ভোট দিয়ে বেরিয়ে সংবাদকর্মীদের অভিযোগ করে বলেন, রাতেই ১৭নং ওয়ার্ডের কাজী জালাল উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২০নং ওয়ার্ডের এমসি কলেজ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ব্যালটে সিল মারা হয়েছে। তিনি বলেন, সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ হলে আবারও বিশাল ব্যবধানে ধানের শীষের বিজয় হবে।

অপরদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান সকাল পৌনে ৯টায় নগরীর ১৪নং ওয়ার্ডের কালীঘাটস্থ সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আওয়ামী লীগের কর্মী হিসেবে আমি গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। তাই জনগণের রায় আমি মাথা পেতে নেবো। নৌকার পক্ষে নগরীতে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। নগরবাসী উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন।

পিডিএসও/হেলাল