প্রাণের বইমেলা

শেষ মুহূর্তে বিক্রির ধুম

প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৭:১৯

পাঠান সোহাগ

প্রতিটি স্টলে চলছে শেষ মুহূর্তের বেচাকেনার ধুম। বিক্রি বেড়েছে, তবে লেখকের পরিচিতির ওপর বেশি বই বিক্রি হচ্ছে। মেলা চলবে আজ ও কাল। শেষ মুহূর্তের বেচাবিক্রিতে প্রকাশকরা খুবই খুশি। আজ ও কাল আরো বেশি বই বিক্রি হবে বলে আশা করছেন তারা।

অন্যদিকে সোমবার বই মেলায় ঝড়-বৃষ্টিতে শেষের সময়ে কিছুটা দুর্ভোগে পড়তে হয়েছিল আগতদের। এ ছাড়া গত রোববার ভোর রাতে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টিপাতে বেশ কয়েকটি স্টলের ত্রিপল উড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। কয়েকটি স্টলের কিছু কিছু বই ভিজে গেছে। স্টলগুলোর ছাউনি টিন দিয়ে তৈরি করায় তেমন কোনো ক্ষতি হয়নি।

সোমবার সরেজমিনে মেলা প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, বিকেল ৩টায় মেলার দ্বার খুললেও অনেকগুলো স্টল খুলতে দেরি করেছে। এদিন বেশির ভাগ পাঠকের হাতে ছিল বিভিন্ন লেখকের নতুন বইয়ের তালিকা। পাঞ্জেরি পাবলিকেশনের সামনে কথা হয় রামপুরার জিতু সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘কয়েকটি বই কিনব। পরিচিত লেখক। তাদের বই আগে থেকেই পছন্দ করে রেখেছি।’ খিলক্ষেতের মামুন বলেন, ‘মেলায় আগেও এসেছি। আবার আসলাম। ভিড় কম। গত রাতে বৃষ্টি হওয়ায় পরিবেশও ভালো। এখন ঘুরে ফিরে দেখছি। প্রথমা প্রকাশনী থেকে তিনটা বই কিনে চলে যাব।’

‘ঐতিহ্য’র বিক্রয়কর্মী আমজাদ হোসেন বলেন, ‘এখন মেলায় তেমন ভিড় নেই। যারা আসছেন তারা বই কিনছেন।’ মিজান পাবলিশার্সের প্রকাশক মিজানুর রহমান বলেন, ‘বিক্রি অনেকটা লেখকের পরিচিতি আর বাকিটা পাঠকের চাহিদার ওপর নির্ভর করে। অর্থাৎ লেখকের পরিচিতি যেমন, তার বইয়ের বিক্রিও তেমন।’

মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ বলেন, ‘এবারই প্রথম প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি স্টলেই দেওয়া হয়েছে টিনের ছাউনি। এর ফলে তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।’

এবারের মেলায় সৈয়দ রাশিদা বারীর ছয়টি নতুন বই এসেছে। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লিখা তিনটি বই ‘বাংলা ভাষা বাংলাদেশ এবং বঙ্গবন্ধু,’ ও ‘ছোটদের আসরে বঙ্গবন্ধু’, রাবেয়া বুকস প্রকাশ করেছে ‘শিশুর মাঝে বঙ্গবন্ধু’ মেলা সাড়া ফেলেছে। এছাড়া ‘ইলিং ফিলিং’, ‘খাবারে পুষ্টি জীবনে তুষ্টি’ ‘পদ্মকুড়ি বাংলা ব্যকরণ ও নির্মিতি’। এ পর্যন্ত এই লেখিকা ৯২টি বই পাঠকের কাছে তুলে দিতে পেরেছেন বলে জানালেন তিনি।

গত ২৬ দিনে মেলায় মোট চার হাজার ১৩১টি নতুন বই এসেছে। গতকাল সোমবার মেলায় আসা নতুন বইয়ের মধ্যে গল্প ১৩টি, উপন্যাস ১৪টি, প্রবন্ধ পাঁচটি, কবিতা ৫৩টি, গবেষণা একটি, ছড়া তিনটি, শিশুসাহিত্য একটি, জীবনী একটি, মুক্তিযুদ্ধের ছয়টি, নাটক একটি, বিজ্ঞান একটি, ভ্রমণ কাহিনী পাঁচটি, ইতিহাস একটি, চিকিৎসা-স্বাস্থ্য একটি, অনুবাদ পাঁচটি, সায়েন্স ফিকশন দুটি এবং অন্যান্য চারটি বইসহ মোট ১১৪টি নতুন বই রয়েছে।

আজকের আয়োজন : মঙ্গলবার। অমর একুশে গ্রন্থমেলার ২৭তম দিন। মেলা চলবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। এদিনে বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে রয়েছে বাংলা একাডেমির অমর একুশে গ্রন্থমেলা এবং বাংলাদেশের প্রকাশনার মান উন্নয়নের সমস্যা শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন খান মাহবুব। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন বদিউদ্দিন নাজির, রেজাউদ্দিন স্টালিন এবং মোস্তফা সেলিম। সভাপতিত্ব করবেন ফজলে রাব্বি। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

পিডিএসও/তাজ