প্রাণের বইমেলা

আজও থাকবে একুশের রেশ

প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১২:০২

পাঠান সোহাগ

গত বুধবার অমর একুশে ফেব্রুয়ারিতে গ্রন্থমেলা প্রাঙ্গণে ছিল জনস্রোত। অন্যান্য দিনের চেয়ে এদিনে ভিড় অনেক বেশি থাকে। মেলা প্রাঙ্গণ তো বটেই আশপাশের এলাকা, শহীদ মিনার, টিএসসি, দোয়েল চত্বর, সহোরাওয়ার্দী উদ্যানের বাকি অংশ, শাহবাগ সবখানেই থাকে উপছে পড়া ভিড়। ভোর থেকেই ভিড় বাড়তে থাকে। পরের দিন গতকাল বৃহস্পতিবারও ভিড় ছিল, তবে একুশের মত নয়। তবে আজ ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ শুক্রবার। মেলায় সকাল ১১ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত থাকবে শিশু প্রহর। ছুটির দিন থাকায় একুশের মতো জনস্রোত না থাকলেও আজও থাকবে ভিড়। ভালো বেচা বিক্রি হবে বলে আশা করছেন প্রকাশকরা।

অমর একুশের দিনে মেলা শুরু হয়েছিল সকাল সাড়ে সাতটায়। শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সবাই মেলায় এসেছিল। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত তিল ধারণের ঠাঁই ছিল না। লোকে লোকারণ্য ছিল মেলা প্রাঙ্গণ। নারী-শিশুসহ সব বয়সী মানুষ এসেছিল। এসেছিল বিদেশি নাগরিকরাও। বইমেলার চার পাশের এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছিল। প্রতিটি স্টল ও প্যাভিলিয়নের বিক্রয়কর্মীরা ব্যস্ত সময় পার করেছেন। প্রকাশক ও লেখকরা অপেক্ষা করেন এই দিনের জন্য, বেচা বিক্রি ভালো হওয়ায় তারা খুশি।

মেলায় কথা হয় নারিন্দার বাসিন্দা শিউলীর সঙ্গে। তিনি বলেল, ‘সকালে শহীদ মিনারে ফুল দিতে এসেছিলাম ছেলে মেয়েদের নিয়ে। আগে মেলায় আসা হয়নি। এ সুযোগে মেলায় আসা। শিশুদের জন্য বই কিনব।’ মিরপুরের আবির বলেন,‘ সকাল থেকেই মেলায় আছি। অনেক ভালো লাগছে। সন্ধ্যার পর চলে যাব। বন্ধুরা বই কিনেছে। আমিও কিনব।’ মেলায় ইমদাদুল হক মিলন বলেন, ‘এবারের বইমেলায় বহু সংখ্যক পাঠক, দর্শনার্থী এসেছে এবং বই কিনছে তা খুবই ইতিবাচক। এ বছর অন্যবারের সব সফলতার রেকর্ড ভাঙবে।’

এদিকে, গতকাল একুশের দিন প্রথম কবিতার বই প্রকাশ হয়েছে রাফিয়া আহমেদের। পার্ল পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশিত বইটির শিরোনাম ‘চাতক প্রেম’। গতকাল বৃহস্পতিবার সাংবাদিক ও লেখক মাহমুদ রিয়াত রচিত ছোট গল্পের বই ‘জোছনা রাতে বৃষ্টি’ মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে। বইটি প্রকাশ করেছে ‘দোয়েল’ প্রকাশনী। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন প্রতীক। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ২৯৯ নম্বরে বইটি পাওয়া যাচ্ছে। সাংবাদিক ও আইনজীবী মিয়া হোসেনের ছোটদের বই ‘ভূতের রাজা গ্রেফতার’ বইটি পাওয়া যাচ্ছে গ্রন্থমেলায়। বইটি প্রকাশ করেছে ছোটদের প্রকাশনা সংস্থা সপ্তডিঙা। বইমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের অংশে শিশু চত্বরে সপ্তডিঙার ৫৩২ নম্বর ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির ৬৭ নম্বর স্টলে বইটি পাওয়া যাচ্ছে।

মেলার প্রথম ২১ দিনে তিন হাজার ৩৫৯টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে গল্প ৪৯৩টি, উপন্যাস ৫১২টি, প্রবন্ধ ১৭৯টি, কবিতা এক হাজার ৫৮টি, গবেষণা ৭৬টি, ছড়া ৮০টি, শিশুসাহিত্য ৯৬টি, জীবনী ৮৪টি, রচনাবলি ১৫টি, মুক্তিযুদ্ধ ৬০টি, নাটক ১৬টি, বিজ্ঞান ৫৩টি, ভ্রমণ ৭৫টি, ইতিহাস ৮৫টি, রাজনীতি ১০টি, স্বাস্থ্য ২৫টি, রম্য/ধাঁধা ১৮টি, ধর্মীয় ১৮টি, অনুবাদ ৩৩টি, অভিধান সাতটি, সায়েন্স ফিকশন ৪২টি এবং অন্যান্য বিষয়ের ওপর ৩২৪টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। গত বুধবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার ২১তম দিনে মেলায় নতুন ৩৯০টি বই এসেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার মেলার ২২তম দিনে মেলায় ১০৩টি নতুন বই এসেছে। 

আজ শুক্রবার বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে রয়েছে শওকত আলীর সাহিত্যসাধনা শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন আবু হেনা মোস্তফা এনাম। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন ফারজানা সিদ্দিকা এবং তারেক রেজা। সভাপতিত্ব করবেন অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। আজ দুদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলনের শেষ দিন। একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য-বিশারদ মিলনায়তনে সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে দক্ষিণ এশিয়ার কবিতা শীর্ষক আলোচনা পর্ব।

পিডিএসও/হেলাল